সড়ক আটকে শ্রমিক লীগের মেজবান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৯:১২ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৯

বগুড়ায় সড়ক আটকে রান্না ও সড়কেই আমন্ত্রিতদের খাবার পরিবেশন করা হয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন পথচারীরা। শহরের সাতমাথা-তিনমাথা সড়ক বন্ধ করে জাতীয় যুব শ্রমিক লীগের বগুড়া সভাপতি রাকিব উদ্দিন প্রামাণিক সিজার এ আয়োজন করেছেন।

শুক্রবার রাত থেকে শনিবার দুপুর পর্যন্ত চলে রান্নাবান্না ও অতিথি আপ্যায়ন। এ অবস্থায় ওই সড়ক দিয়ে কোনো যানবাহন এমনকি পথচারীরা যাতায়াত করতে পারেননি।

স্থানীয় সূত্র ও এলাকাবাসী জানায়, শনিবার জাতীয় শ্রমিক লীগের ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এ উপলক্ষে ঢাকা-রংপুর মহাসড়ক থেকে বগুড়া শহরে প্রবেশের মুখে তিনমাথা এলাকার বিশাল অংশ শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে বন্ধ রাখা হয়। রাস্তায় তোরণ নির্মাণ করে ডিভাইডারের মাঝখানে কাপড় দিয়ে ঢেকে দেয়া হয়। আট হাজার মানুষের জন্য ৮৩টি বড় পাতিলে রান্নাবান্না করা হয়। শনিবার রান্নাবান্না শেষে রাস্তার ওপরই খাবার পরিবেশন করা হয়।

খাবার শেষে ওয়ান টাইম প্লেটগুলো রাস্তার পাশে ফেলা হয়। এভাবে দীর্ঘ সময় রাস্তা বন্ধ করে মেজবানের আয়োজন করায় যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। এতে ওই পথে চলাচলকারী জনগণের দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

অভিযোগ রয়েছে, অনুষ্ঠানের আয়োজক জাতীয় যুব শ্রমিক লীগের বগুড়া সভাপতি রাকিব উদ্দিন প্রামাণিক সিজার ক্ষমতাসীন দলে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে চিহ্নিত। তিনি বগুড়া শহর যুবদলের ১৫ নম্বর ওয়ার্ড কমিটির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক। বগুড়া জেলা শ্রমিক লীগ ও মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল গফুরের ছেলে সিজার।

bogura

রাকিব উদ্দিন প্রামাণিক সিজার বলেন, শুক্রবার রাতে নয়, শনিবার ভোর থেকে আট হাজার অতিথির জন্য রান্নাবান্না হয়েছে। অনুমতির জন্য পৌরসভা ও ডিসি অফিসে দরখাস্ত দিয়েছিলাম। অনুমতি পেয়েই এ আয়োজন করেছি আমরা।

বগুড়া সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান বলেন, প্রতি বছরই তিনমাথা এলাকায় শ্রমিক লীগের অনুষ্ঠান হয়। এবারও তাদের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

বগুড়া পৌরসভার সচিব রেজাউল করিম বলেন, রাস্তা বন্ধ করে কোনো অনুষ্ঠান করতে কাউকে অনুমতি দেয়ার এখতিয়ার আমাদের নেই। আমরা অনুমতি দেইনি কাউকে।

অনুষ্ঠানে আসা অতিথিরা জানান, সাদা ভাত, গরুর মাংস ও আলুর দম খাওয়ানো হয়। অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক মাশরাফি হিরোসহ শ্রমিক লীগের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

সড়কের ওপর মেজবানের আয়োজন ঠিক হলো কিনা জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক মাশরাফি হিরো বলেন, এটা আয়োজকদের বিষয়। এ নিয়ে আমি কিছু বলতে চাই না।

এএম/জেআইএম