রাস্তায় পড়ে থাকা নবজাতক পেল বাবা-মা

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ০৬:০২ পিএম, ১৪ আগস্ট ২০২০

যশোরের শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া বাজারের সাতমাইল পল্লী বিদুৎ অফিসের সামনে রাস্তার পাশে পড়ে থাকা নবজাতকটির দায়িত্ব নিয়েছেন নিঃসন্তান এক দম্পতি। বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) সকালে নবজাতকটি উদ্ধারের পর বিকেলে আলী কদর ও রুবিনা খাতুন দম্পতির জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

এ সময় শার্শা থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) তরিকুল ইসলাম ও সমাজসেবা কর্মকর্তা আব্দুল ওহাব উপস্থিতি ছিলেন।

নবজাতক ওই কন্যা সন্তানকে সরকারি নিয়মকানুন মেনে বাড়ি নিয়ে আসার পর নাম রাখা হয়েছে আশফিয়া। আলী কদর তার দোকানের নাম পরিবর্তন করে রেখেছেন ‘আশফিয়া স্টোর’। যেটা আগে ছিল ‘মা স্টোর’। শার্শা উপজেলার উলাশী এলাকার বাসিন্দা নাভারন বাজারের মুদি দোকানি আলী কদরের স্ত্রী রুবিনা খাতুনের মাতৃস্নেহে বেড়ে উঠবে আশফিয়া।

রুবিনা খাতুন বলেন, আমার স্বামী রাস্তায় পাওয়া শিশুটিকে আমার কোলে তুলে দিয়েছেন। ফুটফুটে এই শিশুটিকে কোলে পেয়েই নাম রেখেছি আশফিয়া। তাকে গুঁড়ো দুধ খাওয়ানো হচ্ছে। আশফিয়াকে মায়ের স্নেহে বড় করে মানুষের মত মানুষ করে তুলবো।

আলী কদর বলেন, আমরা শিশুটিকে পেয়ে খুব খুশি। আশপাশের অনেকে শিশুটিকে দেখতে আসছে। আশফিয়া আমাদের সংসারকে আলোকিত করুক এটাই আমাদের কামনা।

শার্শা থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) তরিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার উপস্থিতিতে উদ্ধার হওয়া ওই নবজাতককে নিঃসন্তান দম্পতি আলী কদর ও রুবিনা খাতুনের কাছে দেয়া হয়েছে। আশা করি শিশুটি খুব ভালো থাকবে।

জামাল হোসেন/আরএআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]