পাওনা টাকা চাওয়ায় অ্যাসিড নিক্ষেপ, একই পরিবারে দগ্ধ ৩

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৯:৪৭ পিএম, ১৯ নভেম্বর ২০২০

ফরিদপুরের সদরপুরে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের অ্যাসিড নিক্ষেপে একই পরিবারের তিনজন দগ্ধ হয়েছেন। আহতদের প্রথমে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) দিবাগত রাতে জেলার সদরপুর সদর ইউনিয়নের ব্রাহ্মন্দী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তবে আজ বৃহস্পতিবার বিষয়টি জানাজানি হয়।

অ্যাসিড দগ্ধরা হলেন-গোপাল দাস (৩৫), তার ভাই বাপন দাস (২৮) এবং ভাতিজা তপন দাস (৩০)।

গ্রামবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সদরপুর সদর ইউনিয়নের ব্রাহ্মন্দী গ্রামের অধিবাসী গোপাল দাসের সঙ্গে একই এলাকার রাম কর্মকারের পাওনা টাকা নিয়ে দুজনের মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরে মনোমালিন্য ও বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে গত সোমবার (১৬ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে দুপক্ষের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা হয়। বিরোধের এক পর্যায়ে গোপাল দাসের প্রতিপক্ষ রাম কর্মকার ও তার ভাই লক্ষণ কর্মকারসহ তাদের লোকজন গোপাল দাসকে মারধর করেন। মারধরের একপর্যায়ে অ্যাসিড নিক্ষেপ করে চলে যান।

জানা গেছে, দুই পক্ষই পেশায় স্বর্ণের কারিগর ও ব্যবসায়ী। তাদের সদরপুর বাজারে স্বর্ণের দোকান রয়েছে।

এ ঘটনায় আহত গোপাল দাসের চাচা পরিমল দাস বাদী হয়ে সদরপুর থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলায় পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। আসামিরা হলেন-রাম কর্মকার, লক্ষণ কর্মকার ও সুশান্ত কর্মকারসহ মোট পাঁচজন।

এ ব্যাপারে সদরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম তুহিন আলী জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ইতোমধ্যে তিন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সদরপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বাবুল বলেন, ‘ঘটনাটি আমি জেনেছি। অপরাধীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে তাদের শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।’

বি কে সিকদার সজল/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]