নারায়ণগঞ্জে গৃহবধূকে দলবেঁধে ধর্ষণ, চেয়ারম্যানের ভাগনে গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৪:৫৬ এএম, ১৬ জুন ২০২১ | আপডেট: ০৬:১২ পিএম, ১৬ জুন ২০২১

নারায়ণগঞ্জ বন্দরে এক গৃহবধূকে অপহরণের পর পাঁচদিন আটকে রেখে দলবেঁধে ধর্ষণ করা হয়েছে। এ অভিযোগে শরীফুল ইসলাম গুড্ডুকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার রাতে উপজেলার কুড়িপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে গুড্ডুকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাকসুদের ভাগনে।

এ ঘটনায় দলবেঁধে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ বাদী হয়ে গুড্ডুসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে বন্দর থানায় মামলা করেন।

অন্য আসামিরা হলেন- বন্দর কুড়িপাড়া নয়ামাটি এলাকার রুহুল আমিনের ভাড়াটিয়া ও মৃত তোতা মিয়ার ছেলে সোহরাব ওরফে পাগলা শুভ (৩৭) এবং একই এলাকার ছালাম মাস্টারের ছেলে ফিরোজ মিয়া (৩৬)।

ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ জানান, তিনি গত ২৫ মে হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। হাসপাতালের গেটের সামনে যাওয়ার পর একটি সাদা রঙের মাইক্রোবাস তার সামনে এসে দাঁড়ায়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই গুড্ডুসহ তিনজন তাকে জোরপূর্বক গাড়িতে তুলে অপহরণ করে ঢাকায় নিয়ে যায়। এরপর অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে একটি দোতলা বাড়ির কক্ষে পাঁচ দিন আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে তিনি এক গৃহকর্মীর মাধ্যমে ছাড়া পেয়ে ৩০ মে বাড়ি ফিরে স্বামীকে ঘটনাটি জানান।

এ ব্যাপারে বন্দর থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, মামলার এক নম্বর আসামি শরীফুল ইসলাম গুড্ডুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

শাহাদাত হোসেন/জেডএইচ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]