মেয়র আব্বাসকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৬:৫৩ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০২১

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে রাজশাহীর পবা উপজেলার কাটাখালী পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আব্বাস আলীকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পবা উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী।

তিনি বলেন, বুধবার বিকেলে পবা উপজেলার দলীয় কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সর্বসম্মতিক্রমে মেয়র আব্বাসকে পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের পদ থেকে অব্যাহতির সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে তাকে ডাকযোগে অব্যাহতিপত্র ও শোকজ চিঠি পাঠানো হবে। পত্রপ্রাপ্তির তিনদিনের মধ্যে তাকে চিঠির উত্তর দিতে বলা হয়েছে। জবাব পাওয়ার পর তাকে স্থায়ী বহিষ্কারের জন্য দলের কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে সুপারিশ পাঠানো হবে।

পবা আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, তার ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ ও বিভিন্ন অন্যায় কার্যক্রমের বিষয়ে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে জানানো হয়েছে। তাকে যেন সব ধরনের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয় সে বিষয়েও সুপারিশ করা হয়েছে। তবে তাকে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য করে দিয়ে গেছেন প্রয়াত আওয়ামী নেতা মেরাজ মোল্লা। বিষয়টি জেলা পর্যায়ের নেতারা দেখবেন।

এদিকে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অনিল কুমার সরকার জাগো নিউজকে বলেন, শুক্রবার জেলায় সভা করে চূড়ান্তভাবে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হবে। সেই প্রস্তুতি চলমান।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নিয়ে কটূক্তির ঘটনায় মেয়র আব্বাস আলীর শাস্তি এবং তাকে দল ও পদ থেকে অপসারণের দাবি জানিয়ে বুধবার দুপুরে রাজশাহীতে মানববন্ধন, বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে।

২২ নভেম্বর রাতে মেয়র আব্বাসের ১ মিনিট ৫১ সেকেন্ডের বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নিয়ে কটূক্তির একটি অডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এতে আওয়ামী লীগসহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। এ নিয়ে নগরীর তিন থানায় রাজশাহী সিটি করপোরেশনের তিন কাউন্সিলর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাও করেছেন। তার মধ্যে বোয়ালিয়া ও রাজপাড়া থানায় এজাহার গৃহীত হয়েছে বলেও জানা গেছে।

ফয়সাল আহমেদ/এসজে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]