সোনারগাঁয়ে প্রকাশ্যে সিল মারেন নৌকার সমর্থকরা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৫:৩১ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২১

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে কেন্দ্র দখল করে প্রকাশ্যে সিল মারার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এরমধ্যে কেন্দ্র দখল নিয়ে গোলযোগ সৃষ্টি হলে প্রায় আধাঘণ্টা ভোটগ্রহণ বন্ধ থাকে।

এর আগে রোববার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে উপজেলার আট ইউনিয়নের ১১৬ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

উপজেলার জামপুর ইউনিয়নে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী আশরাফুল ভূঁইয়া মাকসুদ অভিযোগ করেন, সকাল থেকেই বিভিন্ন কেন্দ্র নৌকার লোকজন দখলের চেষ্টা করেছে। অনেক কেন্দ্রে সিলও দিয়ে দেন। ইউনিয়নের পাপুন্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকালেই প্রকাশ্যে সিল মারা হয়েছে।

এদিকে সাদিপুর ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডে পুরুষ কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের লোকজন কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করলে প্রিজাইডিং অফিসার সোয়া ১২টা হতে আধাঘণ্টা ভোটগ্রহণ বন্ধ রাখেন। সেইসঙ্গে শম্ভপুরা ইউনিয়নে সকাল থেকে বিভিন্ন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

সোনারগাঁওয়ের সাদীপুর ইউনিয়নের নানাখী দারুস সুন্নাত হামিদিয়া আলিম মাদরাসা কেন্দ্রে প্রকাশ্যে সিল মারতে দেখা গেছে।

কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার মো. আজহার হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ভোটের কোনো নিয়ম মানা হচ্ছেনা। বার বার সতর্ক করেও যখন কাজ হয়নি তখন প্রায় আধাঘণ্টা সময় ভোটগ্রহণ বন্ধ রেখেছিলাম।

তবে এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউসুফ উর রহমান বলেন, সকাল থেকেই সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। দুই একটি জায়গায় ঝামেলা হলেও সঙ্গে সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যরা পরিস্থিতি শান্ত করেন।

উপজেলার আট ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেন আওয়ামী লীগ। এরমধ্যে মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিনে পিরোজপুর, কাঁচপুর, বারদী ও সনমান্দি কোনো চেয়ারম্যান প্রার্থী না থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ইঞ্জিনিয়ার মাসুম, মোশারফ ওমর, লায়ন বাবুল ও জাহিদ হাসান জিন্নাহ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

মোবাশ্বির শ্রাবণ/আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]