গরমে ডায়াবেটিস রোগীরা কী খেলে উপকার পাবেন?

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:২৭ পিএম, ২৭ জুন ২০২০

 

তীব্র গরমে প্রাণ জুড়াতে ঠান্ডা পানীয় পানের বিকল্প নেই। এটি দ্রুত ক্লান্তিভাব কাটিয়ে সতেজ অনুভূতি দেয়। পানীয়তে চিনি এবং অন্যান্য উপাদানের উপস্থিতির কারণে এটি আপনাকে তাৎক্ষণিক শক্তি সরবরাহ করে। গরমে নানারকম পানীয় শক্তি জোগালেও এতে থাকা চিনি আমাদের শরীরের জন্য ক্ষতির কারণ হতে পারে। বিশেষ করে যারা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত তাদের স্বাস্থ্যের উপর কিছু গুরুতর প্রভাবও পড়তে পারে। তবে স্বাস্থ্যের স্বাদে আপস করা আসল সমাধান নয়। তাই সুস্বাদু এবং চিনিমুক্ত পানীয় তৈরি করে খেলে তা শরীরের জন্য উপকারী হবে। গরমে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী কিছু পানীয়র সন্ধান জানাচ্ছে টাইমস অব ইন্ডিয়া-

Panio-2.jpg

পুদিনার লাচ্ছি
টক দই, বিট লবণ, পুদিনা পাতা, জিরা গুঁড়া- এমনসব সহজলভ্য উপাদান দিয়ে কয়েক মিনিটের মধ্যেই তৈরি করা যায় এই পানীয়। এই সহজ রেসিপিটি তৈরির জন্য মাত্র ২ কাপ টক দই, ১ গ্লাস পানি, বরফ কিউব, ১ চা চামচ জিরা গুঁড়া, ৪-৫টি পুদিনা পাতা এবং স্বাদ অনুযায়ী লবণ নিন। সবি উপাদান একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিলেই তৈরি সুস্বাদু পানীয়। ডায়াবেটিস রোগীরা এটি নিশ্চিন্তে খেতে পারেন। এটি গরমে স্বস্তি দেয়ার পাশাপাশি শরীরের নানা উপকারে কাজে আসবে।

Panio-2.jpg

বেলের শরবত
বেলের শরবত হলো এই সময়ের সেরা পানীয় যা আপনাকে ভেতর থেকে শক্তি জোগাবে। ইংরেজিতে উডেন অ্যাপেল নামে পরিচিত এই ফল পেট ভরিয়ে রাখার পাশাপাশি স্বস্তি জোগাতেও অনন্য। বেল অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস, আয়রন, ফোলেট, ভিটামিন এবং খনিজের সমৃদ্ধ উৎস। বেলের শরবতেরও অনেক উপকারিতা রয়েছে।

এই সাধারণ পানীয়টি তৈরি করতে আপনার ২টি মাঝারি আকারের বেল প্রয়োজন। বেলের ভেতরের নরম শাঁসালো অংশটি বের করে নিন। এটি কচলে বীজ ফেলে দিন। একটি ব্লেন্ডারে বেলের রস, ৩ কাপ পানি, ১ চা চামচ জিরা গুঁড়া দিন। এটিকে আরও স্বাস্থ্যকর করতে আপনি গুড় যোগ করতে পারেন। ব্লেন্ড করা হয়ে গেলে বরফকুচি দিয়ে পান করতে পারেন।

Panio-2.jpg

চিনি ছাড়া আম পান্না
আমের অনন্য স্বাদ সবারই পছন্দ। তবে আপনি যদি ডায়াবেটিসের রোগী হন তবে এই স্বর্গীয় স্বাদ নেয়া আপনার পক্ষে কিছুটা অস্বাস্থ্যকর হতে পারে। এ কারণেই বেশিরভাগ মানুষ কাঁচা আমের স্বাদযুক্ত পানীয় পছন্দ করে। প্রচন্ড গরমের দিনে তাই আম পান্নার প্রশান্তিকেই বেছে নেয়। তবে আম পান্নায় চিনি ব্যবহার করলে তা অস্বাস্থ্যকর হতে পারে।

প্রচলিত স্বাস্থ্যকর উপায়ে এই ঐতিহ্যবাহী পানীয়টি তৈরি করতে পারেন সহজেই। একটি প্রেসার কুকার নিন, ৩ টি কাঁচা আম এবং দুই কাপ পানি যোগ করুন। ঢাকনা বন্ধ করুন এটি ৩-৪ টি সিটি পর্যন্ত সেদ্ধ হতে দিন। আমের খোসা ছাড়িয়ে, ফলের সেদ্ধ অংশটি বের করুন এবং এটি ভালোভাবে কচলে পাল্প বের করে নিন। তারপরে একটি ব্লেন্ডার নিন। এরপর সেদ্ধ আমের পাল্প, এক কাপ গুড়, স্বাদ অনুযায়ী কালো লবণ, ৩ চা চামচ ভাজা জিরা গুঁড়া এবং ৪-৫ গ্লাস পানি মিশিয়ে নিন। পরিবেশনের সময় বরফকুচি মেশাতে পারেন।

Panio-2.jpg

ঘোল
এই পানীয়র আকর্ষণীয় স্বাদ তাৎক্ষণিকভাবে আপনার প্রাণ জুড়িয়ে দেবে। এই সুস্বাদু পানীয় তৈরির জন্য একটি বড় পাত্রে ২ কাপ দই, ২ কাপ পানি, স্বাদ অনুযায়ী বিট লবণ, ২ চা চামচ ভাজা জিরা গুঁড়া, ২ টেবিল চামচ ধনিয়া এবং পুদিনা পাতা দিন। সবকিছু একসঙ্গে ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নিন। তৈরি হয়ে গেল সুস্বাদু ঘোল। এটি আপনাকে গরমেও সতেজ থাকতে সাহায্য করবে।

Panio-2.jpg

জিরা পানি
জিরাপানি একটি জনপ্রিয় পানীয়। জিরা দিয়ে খুব সহজেই তৈরি করা যায় এই পানীয়। এটি তৈরির জন্য একটি বড় পাত্র নিন। এরপরে আধা কাপ পুদিনা পাতা, আধাকাপ ধনিয়া পাতা, ২ টেবিল চামচ বীজবিহীন তেঁতুল, ২ টেবিল চামচ ভাজা জিরা, ২ চা চামচ আদা বাটা দিন। ব্লেন্ডারের পাত্রে লবণ, বিট লবণ, চিনি এবং ৪ টেবিল চামচ লেবুর রস দিন। এরপরে, জারে ৪ কাপ পানি যোগ করুন এবং সমস্ত উপাদান সম্পূর্ণ একসাথে মিশ্রিত হওয়া পর্যন্ত ব্লেন্ড করুন। পরিবেশনের সময় বরফ যোগ করতে পারেন।

এইচএন/এএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]