ডা. মুরাদের বিএমডিসি রেজিস্ট্রেশন বাতিল দাবি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:০২ এএম, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নেওয়া ডা. মুরাদ হাসানের বিএমডিসি রেজিস্ট্রেশন বাতিলের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. মো. রফিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক মুহাম্মদ মুনির হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে তিনি এ দাবি করেন।

ডা. রফিকুল ইসলাম বলেন, জিয়া পরিবারকে নিয়ে করা ডা. মুরাদ হাসানের বক্তব্য, মন্তব্য পুরোটাই বানোয়াট, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। তার বক্তব্য বিকারগ্রস্ত মনেরই বহিঃপ্রকাশ। জিয়া পরিবার বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ ও গণতান্ত্রিক সংগ্রামের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তাদের হেয় করা দেশের মর্যাদাকে অসম্মান করার শামিল।

তিনি বলেন, ডা. মুরাদ হাসান আজ সমগ্র বাংলাদেশের চিকিৎসক সমাজের নিকট ধিকৃত একটি নাম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ, বিভিন্ন অডিও ক্লিপে প্রচারিত তার কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য ডাক্তার সমাজের ভাবমূর্তিকে বিতর্কিত করেছে। ব্যক্তিজীবন ও শিক্ষাজীবনেও তার বেপরোয়া জীবনযাপনের ঘটনা প্রমাণ করে যে, অসদাচরণ, উচ্ছৃঙ্খলতা ও মিথ্যাচার তার জীবনের অনুষঙ্গ।

তিনি বলেন, দলমত নির্বিশেষে সমগ্র চিকিৎসক সমাজ মনে করে তার নামের আগে ডা. (ডাক্তার) যোগ করলে সম্মানজনক এই মহান পেশাকে অসম্মানিত করা হবে। তাই বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিলকে (বিএমডিসি) তার রেজিষ্ট্রেশন বাতিল করার জোর দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি ডাক্তারদের সব সংগঠন থেকেও তার অব্যাহতি চিকিৎসক সমাজ প্রত্যাশা করে। জিয়া পরিবারকে নিয়ে করা তার কাল্পনিক, মনগড়া, অশ্রাব্য ও অরুচিকর বক্তব্যের আমি তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ধিক্কার জানাচ্ছি।

কেএইচ/এমএইচআর

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]