ম্যাচ জেতানো রিজওয়ানকেই সরিয়ে দিতে চান শোয়েব

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৭ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০২১

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরটা বেশ ভালোই কাটছে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের। ওয়ানডে সিরিজ জেতার পর টি-টোয়েন্টিতে শুরুটা ভালো হয়েছে তাদের। শনিবার তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে ৪ উইকেটের দুর্দান্ত জয় পেয়েছে বাবর আজমের দল।

এ জয়ে মূখ্য ভূমিকা রেখেছিলেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ান। অথচ রিজওয়ানকে কি না সরিয়ে দিতে চান পাকিস্তানের সাবেক গতিতারকা শোয়েব আখতার।

শনিবারের ম্যাচে আগে ব্যাট করে ১৮৮ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করেছিল স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। জবাবে পাকিস্তান ম্যাচ জেতে ইনিংসের ১৯.৫ ওভার খেলে। ওপেনিংয়ে নেমে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন রিজওয়ান। দলকে জিতিয়ে বের হওয়ার সময় তার নামের পাশে ছিল ৫০ বলে ৭৪ রানের ঝকঝকে ইনিংস।

রিজওয়ানের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ের সুবাদেই নিজেদের টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের সর্বোচ্চ রান তাড়ার রেকর্ড গড়তে পেরেছিল পাকিস্তান। কিন্তু তাকেই কি না ওপেনিংয়ে চান না শোয়েব। শুধু তাই নয়, আরেক ওপেনার বাবর আজমকেও ইনিংস সূচনার দায়িত্বে দেখতে চান না রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেসখ্যাত এ পেসার।

বাবর-রিজওয়ানের বদলে টি-টোয়েন্টিতে দুই বাঁহাতি ওপেনার ফাখর জামান ও শারজিল খানকে দেখতে চান শোয়েব। তার মতে, ফর্মে থাকা ফাখর ও শারজিল মিলে দুই সাবেক ওপেনার সাঈদ আনোয়ার ও আমির সোহেলের মতো জুটি গড়তে পারবেন। তাই, রিজওয়ান যত ভালোই খেলুক, তাকে ওপেনিংয়ে চান না শোয়েব।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে শোয়েব আখতার বলেছেন, ‘মোহাম্মদ রিজওয়ান যতো ভালোই খেলুক না কেন, টি-টোয়েন্টি দলে অবশ্যই শারজিল খানের জায়গা পাওয়া উচিত। শারজিল ও ফাখর মিলে সাইদ আনোয়ার ও আমির সোহেলের মতো জুটি গড়তে পারবে।’

শোয়েব আরও যোগ করেন, ‘শারজিল ও ফাখর দুজনই আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান। তারা প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দিতে পারবে। পাকিস্তানের এখন বিধ্বংসী ক্রিকেটের কথাই চিন্তা করতে হবে। ক্রিকেট আর এখন ১৭০-১৮০ রানের নয়। এখন আপনাকে ২০০র বেশি রানের জন্য খেলতে হবে।’

তবে রিজওয়ানের জন্য নতুন ব্যাটিং পজিশনও ভেবে রেখেছেন শোয়েব, ‘আমার মতে, ফাখর-শারজিলের পর তিন নম্বরে বাবর আজম। তারপর হাফিজ, রিজওয়ান ও হায়দার। আমি আসিফ আলিকে মিস করি। কারণে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট শুধুই পাওয়ার হিটিংয়ের খেলা। যেটা আসিফ খুব ভালো পারে।’

এসএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]