প্রথম ম্যাচেই রেকর্ডবুকে তোলপাড় আফগানদের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৩৬ এএম, ২৬ অক্টোবর ২০২১

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে একটি ম্যাচই ছিল সোমবার। শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নিজেদের প্রথম ম্যাচে প্রথম পর্বের গ্রুপ-‘বি’ এর চ্যাম্পিয়ন স্কটল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছিল টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের নবশক্তি আফগানিস্তান। যেখানে স্কটিশদের নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলাই করেছে আফগানরা।

ম্যাচে আগে ব্যাট করে নাজিবউল্লাহ জাদরান, হযরতউল্লাহ জাজাই ও রহমানউল্লাহ গুরবাজদের কল্যাণে ১৯০ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় তারা। পরে ফিল্ডিংয়ে নেমে রশিদ খান ও মুজিব-উর রহমানের ঘূর্ণিতে স্কটল্যান্ডকে মাত্র ৬০ রানে অলআউট করে তুলে নেয় ১৩০ রানের রেকর্ডগড়া জয়।

১৯১ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাওয়ার প্লের ছয় ওভারে ৩৭ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারায় স্কটল্যান্ড। যেখানে ৩ ওভারে মাত্র ১৪ রান খরচায় একাই ৪ উইকেট নেন মুজিব। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে পাওয়ার প্লে'তে ৪ উইকেট নেয়া প্রথম বোলার তিনি।

পরে ইনিংসের অষ্টম ওভারে নিজের স্পেল শেষ করতে এসে পঞ্চম উইকেটও ঝুলিতে পুরেন এ ডানহাতি রহস্য স্পিনার। তার বোলিং ফিগার দাঁড়ায় ৪-০-২০-৫। যা কি না বিশ্বকাপের ইতিহাসে অষ্টম ফাইফারের ঘটনা এবং আফগানিস্তানের সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড।

আফগানদের বোলিং তোপে পড়ে স্কটল্যান্ডের ৩, ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ব্যাটসম্যান আউট হয়েছেন কোনো রান করেই। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৩-৪-৫-৬ নম্বর ব্যাটারের শূন্য রানে আউট হওয়ার প্রথম ঘটনা এটি। ২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের ৩-৪-৫ নম্বর ব্যাটার ফিরেছিলেন খালি হাতে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে চতুর্থ সর্বনিম্ন সংগ্রহের বিব্রতকর রেকর্ড গড়েছে স্কটল্যান্ড। তালিকার প্রথম দুইটি নাম নেদারল্যান্ডসের (২০১৪ সালে ৩৯ ও ২০২১ সালে ৪৪)। পরের নামটি দুইবারের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের। যারা এবারের আসরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গুটিয়ে গেছে মাত্র ৫৫ রানে।

স্কটিশদের ৬০ রানে অলআউট করে আফগানিস্তান ম্যাচটি জিতেছে ১৩০ রানের বিশাল ব্যবধানে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এর চেয়ে বড় ব্যবধানের জয় রয়েছে আর মাত্র একটি। ২০০৭ সালের আসরে কেনিয়ার বিপক্ষে ২৬০ রান করে শ্রীলঙ্কা জিতেছিল ১৭২ রানের ব্যবধানে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড না হলেও, নিজেদের সবচেয়ে বেশি রানে জয়ের রেকর্ড ঠিকই গড়েছে আফগানিস্তান। এর আগে তাদের একশর বেশি রানে জয়ের ঘটনা ছিল একটি। ২০১৩ সালে একই মাঠে কেনিয়াকে হারিয়েছিল ১০৬ রানে।

রশিদ-মুজিবদের ঘূর্ণি তোপে স্কটল্যান্ডের নয়জন ব্যাটার বোল্ড অথবা লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েছেন। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে এর আগে কখনও এমন ঘটনা দেখা যায়নি।

এসএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]