আবরার হত্যার প্রতিবাদে রাস্তায় জাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৫:১৭ পিএম, ০৭ অক্টোবর ২০১৯

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে মানববন্ধন করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এতে প্রগতিশীল বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মী, সাধারণ শিক্ষার্থী ছাড়াও আওয়ামী, বিএনপি এবং বামপন্থী কয়েকজন শিক্ষক অংশ নিয়েছেন।

JU-human-chain

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হাতে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধনে বক্তারা প্রশ্ন তোলেন, ‘ভারতের সমালোচনা করা কি অপরাধ? ভারতের সমালোচনা করলেই পিটিয়ে হত্যা করতে হবে?।’

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট (মার্কসবাদী) জাবি শাখার সভাপতি মাহাথির মুহাম্মদ বলেন, ‘আবরারের ফেসবুক পোস্টটি দেখেছি, যার জন্য তাকে খুন করা হয়েছে। সে বাংলাদেশের সম্পদ ভারতের হাতে তুলে দেয়ার সমালোচনা করেছে, এটা কি তার অপরাধ ছিল?’

JU-human-chain

ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি সুস্মিতা মরিয়ম বলেন, ‘নতজানু নীতির সমালোচনা করতে গিয়ে আবরার খুন হয়েছে। যে বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে সমস্ত জাতি তাকিয়ে থাকে, যেখান থেকে জাতির ভবিষ্যত বের হবে, সে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যখন এমন নৃশংস খুনের ঘটনা ঘটে তখন আমাদের আর বুঝতে বাকি থাকে না বাংলাদেশ কী অবস্থায় আছে। এই খুন শুধু বুয়েটের বিষয় নয়। সারাদেশের মানুষ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে এ খুনের বদলা নেবে।’

নৃবিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস বলেন, এদেশে মানুষের মতপ্রকাশের স্বাধীনতা নেই, গণতন্ত্র নেই। গণতন্ত্রের লেবাসে চলছে স্বৈরতন্ত্র। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে, পাড়া-মহল্লায়, রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ে অপারাধীরা নির্বিঘ্নে পার পেয়ে যায়। বাংলাদেশ ক্রমে ক্রমে সে জায়গায় পৌঁছেছে। চোখের সামনে সন্তানকে মেরে ফেলা হয় অথচ বাবা প্রতিবাদ করতে ভয় পান। আগামী প্রজন্মকে বুকে সাহস নিয়ে দাঁড়াতে বলছি আমরা।

JU-human-chain

প্রসঙ্গত, রোববার (৬ অক্টোবর) মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফাহাদকে শেরেবাংলা হলের দোতলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ফাহাদকেকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের।

এএম/জেআইএম

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]