রুপা হত্যা : তৃতীয় দফায় সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০২:৪৬ পিএম, ০৮ জানুয়ারি ২০১৮

টাঙ্গাইলের মধুপুরে চলন্ত বাসে ঢাকার আইডিয়াল ল’ কলেজের ছাত্রী জাকিয়া সুলতানা রুপাকে গণধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার তৃতীয় দফায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে আদালতে।

সোমবার বেলা ১২টায় টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ও অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক আবুল মনসুর মিয়া এ সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু করেন। এতে সাক্ষ্য প্রদান করেন মোট ৪জন।

সাক্ষীরা হলেন, এমএ রৌফ, মো. ইমান আলী, মো. হাসমত আলী ও মো. লাল মিয়া।

এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি এ কে এম মো. নাছিমুল আখতার জানান, সোমবার বেলা ১২টায় টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ও অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক আবুল মনসুর মিয়া এ সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু করেন। তৃতীয় দিনের এ সাক্ষ্যগ্রহণের প্রথম পর্ব চলে সকাল ১২টা থেকে দুপুর ১টা ১৫মিনিট পর্যন্ত।

আগামীকাল মঙ্গলবার আরো ৯ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হবে বলে আদেশ দেন আদালতের বিচারক। এরা হলেন- কিশোর, মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, আব্দুল বারেক, লিটন মিয়া, রুবেল মিয়া, হযরত আলী, আমেনা খাতুন, হাফিজুর ও আব্দুল মন্ডল।

এ মামলায় রাষ্ট্র পক্ষের সহায়তা ছিলেন বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার টাঙ্গাইল জেলার সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট আতাউর রহমান আজাদ। আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন শামীম চৌধুরী দয়াল ও ঢাকা জর্জ কোর্টের অ্যাডভোকেট মো. দেলোয়ার হোসেন।

উল্লেখ্য, গত ২৫ আগস্ট বগুড়া থেকে ময়মনসিংহ যাওয়ার পথে রুপাকে চলন্ত বাসে ধর্ষণ করে পরিবহন শ্রমিকরা। বাসেই তাকে হত্যার পর মধুপুর উপজেলায় পঁচিশ মাইল এলাকায় বনের মধ্যে মরদেহ ফেলে রেখে যায়। এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ ওই রাতেই অজ্ঞাত পরিচয় মহিলা হিসেবে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

আরিফ উর রহমান টগর/এফএ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :