পেট্রাপোলে পণ্য পরীক্ষণের সিদ্ধান্ত স্থগিত

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ০৭:১১ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০১৯

বেনাপোল বন্দরের বিপরীতে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে আমদানি-রফতানি পণ্য চালান খালাস হওয়ার পূর্বে আনলোড করে শতভাগ পরীক্ষণের যে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল তা স্থগিত করেছে ভারতীয় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

পেট্রাপোল বন্দরে পর্যাপ্ত জনবল, জায়গা ও পণ্য ওঠা-নামানোর যন্ত্রপাতিসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা না থাকায় পেট্রাপোল কাস্টমস এমন সিদ্ধান্ত স্থগিত করে বলে জানা গেছে। তবে এতে ব্যবসায়ীরা সাময়িকভাবে খুশি হলেও দুশ্চিন্তা মুক্ত হতে পারছেন না। হঠাৎ করে কবে আবার এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হয় সেই অপেক্ষায় তারা।

Benapole-Impor2

আমদানিকারক ও বেনাপোল বন্দর ব্যবহারকারীরা জানান, বিভিন্ন অব্যবস্থাপনায় এমনিতেই একটি পণ্য চালান ভারত থেকে আমদানি হতে ৫ থেকে শুরু করে অনেক ক্ষেত্রে ১৫ দিন পর্যন্ত সময় লেগে যায়। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া পেট্রাপোল বন্দরে আবার প্রতিটি পণ্য চালান আনলোড করে শতভাগ পরীক্ষা করতে গেলে ভোগান্তি আরও কয়েকগুণ বেড়ে যেত। ফলে পণ্য খালাস একদিকে যেমন কঠিন হয়ে পড়তো তেমনি আমদানি খরচও বেড়ে যেত। যার প্রভাব পড়তো দেশীয় বাজারে। আর ব্যবসায়ীরা এ বন্দর থেকে মুখ ফিরিয়ে নিত। ভারতীয় কাস্টমস কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত স্থগিতে বাণিজ্যে আবার গতি ফিরবে বলে তাদের ধারণা।

বেনাপোল আমদানি-রফতানিকারক সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল হক বলেন, আমদানি-রফতানি পণ্যের শতভাগ পরীক্ষণ বন্ধের সিদ্ধান্ত অস্থায়ী। সেটা যেকোনো সময় আবার কার্যকর হতে পারে। তাই বিষয়টি নিয়ে দুই দেশের বাণিজ্য সংশ্লিষ্টদের মধ্যে কার্যকরী ব্যবস্থা নেয়া জরুরি হয়ে পড়েছে। না হলে পরবর্তীতে ব্যবসায়ীরা আবার একই সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে।

Benapole-Impor2

ভারতের পেট্রাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট স্টাফ ওয়েল ফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী বলেন, বাংলাদেশের মতো পণ্য রাখার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা পেট্রাপোল বন্দরে নেই। ফলে এমনিতেই এখানে সারা বছর পণ্যজট লেগেই থাকে। মালামাল আমদানি-রফতানিতে মারাত্মক সমস্যা হয়। এখানকার ব্যবসায়ী ও বন্দর ব্যবহারকারীরা শতভাগ পণ্য পরীক্ষার বিষয়টি কাস্টমস কর্তৃপক্ষকে বোঝাতে সক্ষম হলে আপাতত সিদ্ধান্ত স্থগিত করে পূর্বের নিয়মে পণ্য খালাস সচল রাখা হয়।

বেনাপোল কাস্টমসের সহকারী কমিশনার আকরাম হোসেন বলেন, ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে জেনেছি পেট্রাপোল কাস্টমস কর্তৃপক্ষ আপাতত আমদানি-রফতানি পণ্যের শতভাগ পরীক্ষণ স্থগিত করেছে। আগের নিয়মেই পণ্য আমদানি-রফতানি হচ্ছে। তবে বিষয়টি ঝুলিয়ে না রেখে দ্রুত সমাধান করা উচিত।

জামাল হোসেন/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :