বগুড়ায় দুই বাসের সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রীসহ নিহত ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৫:২৯ পিএম, ১৪ আগস্ট ২০১৯

বগুড়ার শাজাহানপুরে যাত্রীবাহী দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন। বুধবার বিকেল ৩টার দিকে উপজেলার আড়িয়া বাজার স্ট্যান্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- রংপুর সদরের কামাল কাচনা গ্রামের আব্দুল্লাহ আল কাফির ছেলে খায়রুল আলম যাদু (৫৫) ও তার স্ত্রী রানু বেগম (৪৫)। অপর নিহত ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে তিনি বাসচালক বলে জানা গেছে।

আহতদের মধ্যে রংপুর সদরের মেলাবর গ্রামের পরিমলের স্ত্রী মিনতী (৪০), রংপুর ঘোড়াঘাট থানার কানাগাড়ী গ্রামের সুবিদের মেয়ে সুলতানা (৪৫), গংগাচড়া থানার পাকুরিয়া গ্রামের আব্দুল বাতেনের ছেলে সাব্বির (৩২) এবং নিহত খায়রুল আলম যাদুর ছেলে এইচএসসি ১ম বর্ষের ছাত্র মিরাজ ও ৪র্থ শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে জান্নাতী খাতুন রয়েছেন বলে জানা গেছে। অপর আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

নিহত খায়রুল আলম যাদুর ছেলে আহত মিরাজ জানায়, তার মা রানু বেগম ঢাকার কেরানীগঞ্জ তেলখানা এলাকায় আইডিয়াল প্রিপারেটরি স্কুলে শিক্ষকতা করেন। ঈদের ছুটি শেষে সবাই বাড়ি ফিরছিলেন তারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আড়িয়া বাজার স্ট্যান্ডে মহাসড়কের উপর একটি লোকাল বাস যাত্রী ওঠানামা করাচ্ছিল। এমন সময় ঢাকা থেকে আসা রংপুরগামী শ্যামলী পরিবহন (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-৪০৪৫) থেমে থাকা লোকাল বাসটি ওভারটেক করার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকাগামী আহাদ এন্টারপ্রাইজ (ঢাকা মেট্রো-ব-১৩-০৪০৭) বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে গুরুতর আহত অবস্থায় অন্তত ২০-২৫ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

থানার ওসি আজিম উদ্দিন জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে থানা পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করে। আহতদেরকে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তিনজন মারা যান। দুর্ঘটনা কবলিত বাস দুটি থানায় রয়েছে।

লিমন বাসার/এফএ/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :