কারাবন্দি কাউন্সিলরের জন্য আটকে আছে প্যানেল মেয়র নির্বাচন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি যশোর
প্রকাশিত: ০২:০৪ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০২১

কারাগারে বন্দি কাউন্সিলর সাইদুর রহমান রিপনের জন্য আটকে আছে যশোর পৌরসভার প্যানেল মেয়র নির্বাচন কার্যক্রম। গত ১৮ এপ্রিল পৌর পরিষদের প্রথম সভায় এই নির্বাচনের কথা থাকলেও রিপনের জন্য তা পিছিয়ে ২৫ এপ্রিল নির্ধারণ করেন মেয়র। কিন্তু এর আগে হঠাৎ করেই বুধবার (২১ এপ্রিল) পৌর মেয়র ওই কার্যক্রমও স্থগিত করে চিঠি দিয়েছেন।

কারাগারে বন্দি একজন কাউন্সিলরের জন্য প্যানেল মেয়র নির্বাচন স্থগিত থাকায় এ নিয়ে অধিকাংশ কাউন্সিলর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

যশোর পৌরসভা সূত্র জানায়, ৩১ মার্চ যশোর পৌরসভার নির্বাচনের পর প্রথম পর্যায়ের লকডাউনের মধ্যেই গত ১৩ এপ্রিল নবনির্বাচিত পরিষদ শপথ গ্রহণ করে। এরপর কঠোর লকডাউনের মধ্যে গত ১৮ এপ্রিল পরিষদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। হত্যা মামলায় কারাগারে বন্দি অবস্থায় ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন সাইদুর রহমান রিপন। প্যারোলে মুক্তি পেয়ে তিনি শপথ নিলেও তিনি কারাগারেই রয়েছেন।

পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাজী আলমগীর কবির সুমন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর নাসিমা আক্তার জলি জানান, পরিষদের প্রথম সভায় প্যানেল মেয়র নির্বাচন সম্পন্ন করার এজেন্ডা ছিল। কাউন্সিলররা ভোটাভুটির মাধ্যমে বিষয়টি সম্পন্নের দাবি জানান। কিন্তু আলোচনা উপেক্ষা করে মেয়র হায়দার গণী খান পলাশ কাউন্সির রিপনের জন্য এক সপ্তাহ সময় নিয়ে ২৫ এপ্রিল প্যানেল মেয়র নির্বাচনের তারিখ দেন। এর মধ্যে রিপন জামিন পেলে ওই নির্বাচনে অংশ নেবেন।
কিন্তু এর আগেই ২১ এপ্রিল বুধবার এক চিঠিতে পৌর মেয়র হায়দার গণী খান পলাশ হঠাৎ করেই ওই কার্যক্রম স্থগিত করেন বলে জানান তারা।

৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাহিদ হোসেন মিলন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর রোকেয়া পারভীন ডলি জানান, এজেন্ডা থাকলেও পরিষদের প্রথম সভায় প্যানেল মেয়র নির্ধারণ করা হয়নি। মেয়র ২৫ এপ্রিল তারিখ নির্ধারণ করেছেন। কিন্তু হঠাৎ করেই কোনো আলোচনা ছাড়া এই তারিখ স্থগিত করা হয়েছে।

মূলত কাউন্সিলর সাইদুর রহমান রিপন কারাগারে থাকায় সময় ক্ষেপণের জন্য এটি করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তারা আরও উল্লেখ করেন, বর্তমান পরিষদ শপথ নিয়েছে লকডাউনের মধ্যে। প্রথম সভাও অনুষ্ঠিত হয়েছে লকডাউনের মধ্যে। এখন হঠাৎ করেই লকডাউন আর অসুস্থতার অযুহাত দাঁড় করানো হয়েছে।

৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রদীপ কুমার নাথ বাবলু জানান, সভা থেকে ২৫ এপ্রিল প্যানেল মেয়র নির্বাচন সম্পন্নের তারিখ নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু কোনো আলোচনা ছাড়াই তা মেয়র একক সিদ্ধান্তে তারিখ স্থগিত করেছেন। এটি কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে যশোর পৌরসভার মেয়র হায়দার গণী খান পলাশ বলেন, প্যানেল মেয়র আমি আমার সময়মতো করে নেব। এ নিয়ে আপনাদের মাথাব্যথার কোনো কারণ নেই।

মিলন রহমান/এফএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]