জলবায়ু সম্মেলন: বিশ্বকে রক্ষার শেষ সুযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৩৭ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২১
ছবি-সংগৃহীত

গ্রিনহাউজ গ্যাস নিঃসরণ কমানোর বর্তমান প্রতিশ্রুতিই পারে বিশ্বকে নিরাপদ অবস্থানে রাখতে। কারণ এ শতাব্দীতে গড় ২ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার সম্মুখীন হবে বিশ্ব যা খুবই বিপর্যয়কর। জলবায়ুবিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনের আগে সর্বশেষ কঠোর সতর্ক বার্তা দিয়ে জাতিসংঘ এ তথ্য জানায়।

জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচি মঙ্গলবার জানায় কার্বন নিঃসরণ কমানোর জাতীয় পরিকল্পনার প্রতিশ্রুতিগুলো খুবই দুর্বল। স্কটল্যান্ডের শহর গ্লাসগোতে কপ-২৬ জলবায়ু সম্মেলনের ঠিক কয়েক দিন আগে সংস্থাটি এ তথ্য জানায়।

ইউএনইপির নির্বাহী পরিচালক ইঙ্গার অ্যান্ডারসেন বলেছেন, বিশ্বে যত কার্বন নিঃসরণ হয় তার মধ্যে ৭৮ শতাংশের জন্য দায়ী জি-২০ দেশগুলো। উন্নত দেশগুলোসহ বিশ্বের সব দেশই এর জন্য কম-বেশি দায়ী।

তিনি সতর্ক করে বলেন, উন্নত দেশগুলো ২০৩০ সাল নাগাদ যে পদক্ষেপ নিয়েছে তা যথেষ্ট নয় বরং অনেক দেরি হয়ে যাবে। জলবায়ু বিপর্যয়ের হাত থেকে বিশ্বকে রক্ষার জন্য যা খুবই বিলম্বিত সিদ্ধান্ত বলে সতর্ক করেছেন বিজ্ঞানীরা। সুতরাং যা করার এখনই করতে হবে।

বিশ্ব নেতারা আগামী সপ্তাহে জলবায়ু সম্মেলনে উপস্থিত হবেন। গ্রিনহাউজ গ্যাস কমানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের উচ্চাবিলাসী প্রতিশ্রতি দেবেন । আর এটাই হবে বৈশ্বিক তাপমাত্রা ১ দশমিক ৫ ডিগ্রির নিচে রাখার সব শেষ সুযোগ।

এবারের সম্মেলনের ইতিবাচক সিদ্ধান্ত ও গ্রিনহাউজ গ্যাস কমানোর কার্যকর প্রতিশ্রুতি বিশ্বকে মহাবিপর্যায়ের হাত থেকে বাঁচাতে সক্ষম হবে। বিশ্বের সব প্রান্তেই এখন আবহাওয়ার বিপর্যায় হয়েছে। দেখা দিয়েছে ঘূর্ণিঝড়, দাবানল, বন্যা-ভূমিধস ও খরা। ফলে গভীর সংকটের সম্মুখীন হচ্ছে মানবজাতি। বিশেষ করে বৈশ্বিক উষ্ণতা আবহাওয়া পরিস্থিতিকে সবচেয়ে বেশি সংকটময় করবে।

এমএসএম/জিকেএস

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]