লারাকে ছাড়িয়ে হোল্ডার

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:২০ পিএম, ১৩ জুলাই ২০২০

ওয়েস্ট ইন্ডিজ কি তাদের সেই সোনালি দিন ফিরে পাবে? কথাটা এখন দিবাস্বপ্নের মতো। সেই যুগ আর বোধ হয় ফিরে পাওয়া সম্ভব নয়। তবে ভাঙাচোরা দলটাকে যেভাবে সাজিয়ে এনেছেন জেসন হোল্ডার, তাতে প্রবল পরাক্রমশালী না হলেও টেস্টের বড় দলগুলোর কাতারে আবারও শামিল হওয়ার সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে এই ক্যারিবীয়দের।

ইংল্যান্ডের মাটিতে যেটা গত ২০ বছরে হয়নি, সেটাই এবার করে দেখাল জেসন হোল্ডারের ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্রিকেটের জন্মভূমিতে কোনো সিরিজের প্রথম টেস্টে দুই দশক পর পেল জয়ের দেখা। সাউদাম্পটনে স্বাগতিকদের ৪ উইকেটে হারিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে ক্যারিবীয়রা।

আশির দশক থেকে এই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছিল অপ্রতিরোধ্য। ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত ১৫ বছরের মধ্যে ২৯টি টেস্ট সিরিজ অপরাজিত ছিল তারা। সেই সোনালি সময়ে দলকে অনেক জয়ের মুখ দেখানো ক্লাইভ লয়েড এখনও ক্যারিবীয়দের সফলতম অধিনায়ক। ৭৪ টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নেতৃত্ব দিয়ে ৩৬টিতে জিতিয়েছেন তিনি, হেরেছে মাত্র ১২ টেস্ট।

দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন আরেক কিংবদন্তি ভিভ রিচার্ডস। দলকে ৫০ টেস্টে নেতৃত্ব দিয়ে ২৭টিতেই জিতিয়েছেন তিনি, তার সময়ে ক্যারিবীয়রা হারে মাত্র ৮ টেস্ট। তৃতীয় অবস্থানে রিচি রিচার্ডসন। ২৪ টেস্টে নেতৃত্ব দিয়ে জিতিয়েছেন ১১টিতে।

তবে এই রিচার্ডসনকে তিন নম্বর জায়গাটিতে আর একা থাকতে দিলেন না হোল্ডার। সাউদাম্পটনে জয়ের পর ৩৩ টেস্টে অধিনায়ক হিসেবে তার জয় ১১টি। যৌথভাবে এখন দেশের ইতিহাসের তৃতীয় সফলতম অধিনায়ক এই অলরাউন্ডার।

এতে করে ক্যারিবীয় ক্রিকেটের বরপুত্র ব্রায়ান লারাকেও পেছনে ফেলেছেন হোল্ডার। লারা দলকে ৪৭ টেস্টে নেতৃত্ব দিয়ে জিতিয়েছিলেন ১০টিতে। নেতৃত্বের পরিসংখ্যানে হোল্ডার এখন তার থেকে এগিয়ে।

এমএমআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]