কেক কেটে মুশফিকের ‘রেকর্ড’ উদযাপন টিম টাইগার্সের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:০৮ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০২১

ফিল্ডিংয়ে নেমে উইকেটের পেছনে স্ট্যাম্পিং করেছেন একটি, পরে ব্যাট হাতে সহজ জয়ের ম্যাচে অপরাজিত থেকেছেন ২৫ বলে ৯ রান করে। তবু সিরিজ জয় নিশ্চিত হওয়ার পর ড্রেসিংরুমে উদযাপনের মধ্যমণি মুশফিকুর রহীম। অবাক করার মতোই বিষয়! দুই ম্যাচের কোনোটিতেই ফলে নির্ধারণী পারফরম্যান্স না করলেও, মুশফিককে ঘিরে কেন উদযাপন?

উত্তর মিলেছে স্বয়ং মুশফিকের কাছ থেকেই। নিজের ফেসবুক পাতায় আপলোড করা ভিডিওতে জানিয়েছেন নিজের এক অর্জনের কথা, সেটি উদযাপন করতেই কাটা হয়েছে কেক।

ভিডিওর ক্যাপশনে মুশফিক লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ্। দারুণ এই আয়োজনের জন্য আমার সতীর্থদের ধন্যবাদ। কিংবদন্তি মাশরাফি বিন মর্তুজাকে ছাড়িয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ম্যাচের রেকর্ড এটি।’

তবে মুশফিকের এই ক্যাপশনটি পুরোপুরি সঠিক নয়। কেননা আজ (শুক্রবার) ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়েছেন ঠিকই, তবে মাশরাফিকে ছাড়িয়ে যাননি মুশফিক। বরং বসেছেন মাশরাফির পাশে। একটি রেকর্ডে অবশ্য আগের ম্যাচেই মাশরাফিকে ছাড়িয়ে গেছেন মুশফিক।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ওয়ানডে খেলার রেকর্ডটি প্রথম ম্যাচেই নিজের করে নিয়েছেন তিনি। সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশের হয়ে সমান ২১৮টি ম্যাচ খেলার রেকর্ড ছিল মুশফিক ও মাশরাফির। বুধবার প্রথম ম্যাচে এ রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন মুশফিক। আজ তিনি খেলেছেন ক্যারিয়ারের ২২০তম ওয়ানডে ম্যাচ।

এদিকে গত মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচটি ছিল মাশরাফির ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ২২০তম ম্যাচ। কেননা তিনি দুইটি ম্যাচ খেলেছেন এশিয়া একাদশের হয়ে। ২০০৭ সালে হওয়া আফ্রো-এশিয়া কাপের দুইটি ম্যাচে ছিলেন মাশরাফি। এর সঙ্গে বাংলাদেশের জার্সিতে খেলেছেন ২১৮টি ওয়ানডে। সবমিলিয়ে হয় ২২০ ম্যাচ। যা আজ ছুঁয়েছেন মুশফিক। তৃতীয় ম্যাচ খেলে এককভাবে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়বেন এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ডে পরের দুইটি নাম তামিম ইকবাল (২০৯ ম্যাচ) ও সাকিব আল হাসান (২০৮ ম্যাচ)। এ চারজনেরই রয়েছে ২০০ ওয়ানডে খেলার রেকর্ড।

এসএএস/আইএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]