শ্রীলঙ্কায় ইতিহাসের সর্বোচ্চ দামে ডলার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৪১ পিএম, ০৭ এপ্রিল ২০২২
ছবি: সংগৃহীত

চরম অর্থ সংকটের মধ্যে শ্রীলঙ্কার ইতিহাসে সর্বোচ্চ দামে পৌঁছালো মার্কিন ডলার। শ্রীলঙ্কান মুদ্রার ধারাবাহিক দরপতনে দেশটিতে এখন এক ডলারের দাম দাঁড়িয়েছে তিনশ রুপির বেশি।

লঙ্কান সংবাদমাধ্যম সিলন ডেইলির খবরে জানা গেছে, বুধবার (৭ এপ্রিল) শ্রীলঙ্কায় এক মার্কিন ডলার বিক্রি হচ্ছে ৩১৯ দশমিক ৯৯ রুপির বিনিময়ে, যা দেশটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

লঙ্কান কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানিয়েছে, মুদ্রার ব্যাপক দরপতনের কারণে তারা এক মার্কিন ডলার কিনছে ৩০৯ দশমিক ৩৮ রুপিতে ও বিক্রি করছে ৩১৯ দশমিক ৯৯ রুপিতে।

১৯৪৮ সালে স্বাধীনতা লাভের পর থেকে সবচেয়ে ভয়াবহ আর্থিক সংকটে ভুগছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশ শ্রীলঙ্কা। দেশটির চারদিকে এখন শুধুই হাহাকার। খাবারের দাম আকাশচুম্বী। চলছে জ্বালানি তেলের তীব্র সংকট। তেল সংগ্রহের জন্য হাজার-হাজার মানুষ লাইনে ভিড় করছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে পেট্রল পাম্পগুলোতে সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছে লঙ্কান সরকার।

কাগজের অভাবে স্কুল পর্যায়ের পরীক্ষা বাতিল করতে বাধ্য হয়েছে শ্রীলঙ্কা। কারণ, কাগজ আমদানির মতো বৈদেশিক মুদ্রা তাদের কাছে নেই। বিদেশি ঋণের ভারে আজ জর্জরিত দ্বীপরাষ্ট্রটি। পরিস্থিতি এমন অবস্থায় ঠেকেছে, তারা নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের আমদানি ব্যয়ও মেটাতে পারছে না। যার ফলে জিনিসপত্রের দাম আকাশ ছুঁয়েছে। চালের দাম দাঁড়িয়েছে প্রতি কেজি ২২০ রুপি। বিদ্যুৎ না থাকায় কেরোসিনের বাতি, কাঠ কয়লার ইস্ত্রি মেশিনে ফিরতে বাধ্য হচ্ছেন লঙ্কানরা।

চরম অর্থসংকটের মুখে ক্ষুব্ধ জনগণ লঙ্কান প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসের পদত্যাগ দাবি করছে। রাস্তায় রাস্তায় শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। পরিস্থিতি সামলাতে কারফিউ জারি করতে হয়েছে লঙ্কান সরকারকে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, শ্রীলঙ্কার এই সংকট রাতারাতি তৈরি হয়নি। বহু বছর ধরে একের পর এক অলাভজনক মেগা প্রকল্পে অর্থায়ন আর অদূরদর্শী নেতৃত্বের কারণেই এমন ঘোর বিপদে পড়েছে দক্ষিণ এশীয় দেশটি।

কেএএ/জিকেএস

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]