গুরু স্মিথকে পেয়ে আপ্লুত ক্যারে

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৩৬ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৯

বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারি পেছনে ফেলে ইতিমধ্যেই বিশ্বকাপ খেলে ফেলেছেন অস্ট্রেলিয়ার দুই তারকা ক্রিকেটার স্টিভেন স্মিথ আর ডেভিড ওযার্নার। বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছে ডেভিড ওয়ার্নার। স্টিভেন স্মিথও দারুন পারফর্ম করেছেন। যদিও সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছে তাদের দল অস্ট্রেলিয়াকে।

সামনেই অ্যাশেজ সিরিজ। বিশ্বকাপ ভুলে এখন অ্যাশেজ নিয়েই প্রস্তুতি নিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড। সেই অ্যাশেজ নিয়ে দারুণ আপ্লুত অস্ট্রেলিয়ার নতুন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান অ্যালেক্স ক্যারে। বিশ্বকাপেও দারুণ পারফরম্যান্স দেখিয়েছেন ক্যারে। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে যিনি গুরু মানতেন স্টিভেন স্মিথকে।

এবারই অ্যালেক্স ক্যারে প্রথম অ্যাশেজ খেলতে যাচ্ছেন। নিজের প্রথম অ্যাশেজ সিরিজের আগে ছোটবেলার আদর্শ স্টিভেন স্মিথকে কাছে পেয়ে দারুণ আপ্লুত অস্ট্রেলিয়ার এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। বিশেষ করে স্মিথ যখন অ্যাশেজের আগে অসি ক্রিকেটারদের উদ্বুদ্ধ করার দায়িত্বে রয়েছেন। ক্যারে বলছেন, ‘স্টিভের মতো একজনকে দলে পাওয়া বিস্ময়কর অভিজ্ঞতা।’

স্টিভেন স্মিথের অভিজ্ঞতা থেকে নিজেরা কিছু শিখতে পারবেন বলে বিশ্বাস করেন ক্যারে। তিনি বলেন, ‘মনে হয় নয়টি অ্যাশেজে (আসলে আটটি) স্টিভ খেলেছেন। ইংল্যান্ডেও খেলার অভিজ্ঞতা প্রচুর রয়েছে তার। তাই তার জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতা এবারের অ্যাশেজ সিরিজের আগে জানতে পারা শুধু আমার জন্যই নয়, গোটা অস্ট্রেলিয়া দলের কাছে বিশাল প্রাপ্তি। সত্যিই আমরা সৌভাগ্যবান।’

বিশ্বকাপে ক্যারের খেলার প্রশংসা করেছিলেন স্টিভেন স্মিথ নিজে। তার সঙ্গে তুলনা করেছিলেন মাইক হাসিরও। যা নিয়ে ২৭ বছর বয়সী ক্যারের প্রতিক্রিয়া, ‘হাসি অনেক বড় ক্রিকেটার ছিলেন। তার অর্ধেকও যদি হতে পারি, তা হলেই খুশি হব।’

স্টিভেন স্মিথের সঙ্গে সময় কাটাতে পারার অভিজ্ঞতায়ও মুগ্ধ ক্যারে। এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে স্টিভকে আরও ভাল করে জানতে দ্রুত তার সম্পর্কে সবকিছু জেনে নিয়েছি। হয়তো একটু তাড়াতাড়িই সব জেনেছি। তিনি এবার আসল কাজটা শুরু করবেন। আসল কাজ মানে আমাদের পরামর্শ দেওয়ার দায়িত্ব পালন করবেন। তার ক্রিকেট-বুদ্ধি নিয়ে কোনও আলোচনা হতে পারে না। এ কয়েকদিন অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে ম্যাচ দেখে তিনি নানা মতামত জানিয়েছেন। এর মধ্যে আমাদের কিছু কথা-বার্তাও হয়েছে। তবে লাল বলের ক্রিকেটে তার পরামর্শের মূল্য বিশাল। টেস্টে যা আমাদের মনঃসংযোগ বাড়াতে অনেকটাই সাহায্য করবে বলে আমাদের বিশ্বাস।’

আইএইচএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :