সবাই সেঞ্চুরি করলে তো রান হবে এগারোশো: মুমিনুল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত: ০৭:৪৪ পিএম, ১৯ মে ২০২২

সেঞ্চুরি করেছেন তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম, পঞ্চাশ ছাড়িয়েছেন মাহমুদুল হাসান জয় ও লিটন দাস। বল হাতে নাঈম হাসান নিয়েছেন ৬ উইকেট, দ্বিতীয় ইনিংসে স্বপ্রতিভ ছিলেন তাইজুল ইসলাম। দুই ইনিংস মিলেই কার্যকরী বোলিং করেছেন সাকিব আল হাসান।

সবমিলিয়ে বেশ কয়েকজনের সম্মিলিত পারফরম্যান্সের জোরেই চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট ড্র করেছে বাংলাদেশ দল। তবে এর মাঝেও রয়েছে ব্যর্থতার উদাহরণ। বিশেষ করে নাজমুল হোসেন শান্ত ও মুমিনুল হক আউট হয়েছেন মাত্র ২ রান করে। বল হাতে উইকেট পাননি খালেদ আহমেদ ও শরিফুল ইসলাম।

এছাড়াও জোড়ায় জোড়ায় উইকেট পড়ার রোগেও ভুগেছে বাংলাদেশ দল। মাহমুদুল হাসান জয় ফেরার কিছুক্ষণ পরই সাজঘরের পথ ধরেন শান্ত ও মুমিনুল। আবার লিটন দাস আউটের পরের বলে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান তামিম ইকবাল। এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন রাখা হয় অধিনায়ক মুমিনুলের সামনে।

জানতে চাওয়া হয়, জোড়ায় জোড়ায় উইকেট পড়া নিয়ে চিন্তিত কি না বাংলাদেশ দল। পাশাপাশি এটি থেকে উত্তরণের পথ কী? এর জবাবে মুমিনুল জানালেন, কোনো দলে ১১ জনেরই পারফর্ম করা কঠিন। তাই সবাই পারফর্ম না করলেও সমস্যা নেই। কেননা সবাই সেঞ্চুরি করলে রান হবে এগারোশো।

মুমিনুলের ভাষ্য, 'একটা দলে ১১ জনের পারফর্ম করা কঠিন। যদি ১১ জনই একশ করে তাহলে তো রান ১১০০ হবে। আমার কাছে মনে হয় ক্রিকেট খেলাটাই তো এরকম। হয় দুজন পারফর্ম করবে বা তিনজন পারফর্ম করবে। যারা করবে তারা বড় করবে। এটা বড় কোনো বিষয় নয়।'

চট্টগ্রামে ড্র হওয়া প্রথম টেস্ট থেকে প্রাপ্তি জানতে চাওয়া হলে মুমিনুল বলেছেন, 'দলগত ভাগে আমরা সবাই ভালো খেলতে পেরেছি এটাই সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি। এটাই দরকার। সবাই যখন ভালো খেলি তখন দলের একটা ভালো ফল হয়।'

এসএএস/আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]