মগবাজার বিস্ফোরণে ইসলামিক অনুষ্ঠান উপস্থাপকের মৃত্যু

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১৯ পিএম, ২৮ জুন ২০২১

রাজধানীর মগবাজারের তৃতীয় তলা ভবনে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় গণমাধ্যমকর্মী, পবিত্র কুরআনের হাফেজ ও রেডিও ধ্বনির ইসলামিক অনুষ্ঠান ‘আহকামুল জুমা’র উপস্থাপক মুস্তাফিজুর রহমান মারা গেছেন।

রোববার (২৭ জুন) সন্ধ্যায় এ ঘটনায় শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। নিহত হয়েছেন আরও ৭ জন। অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ঘটনাস্থলে বেশকিছু যানবাহন ও ভবন এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

মেধাবী শিক্ষার্থী হাফেজ মুস্তাফিজুর রহমানকে বিস্ফোরণের পর রক্তাক্ত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

মুস্তাফিজুর রহমানের ‘আহকামুল জুমা’ অনুষ্ঠানটি সরসারি সম্প্রচার হতো প্রতি শুক্রবার। এছাড়া তিনি একজন সংস্কৃতিকর্মী হিসেবেও বেশ পরিচিত। উপস্থাপনা করতেন রেডিও একাত্তরের ‘ইসলাম ও আমরা’ নামে একটি অনুষ্ঠানও।

এছাড়াও বিভিন্ন জায়গায় তিনি উপস্থাপনা বিষয়ক কোর্স করাতেন। টেলিভিশনে রমজান মাসব্যাপী জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘আলোকিত কোরআন’ ও ‘সময়ের সেরা হাফেজ’ প্রোগ্রামগুলোর সমন্বয়কারী ছিলেন।

নিহতের স্বজনরা জানান, পরিবারের বড় ছেলে মুস্তাফিজুর রহমান। পড়াশোনা ও কাজের সুবাদে ঢাকায়ই থাকতেন। হয়তো কাজের জন্যই গিয়েছিলেন মগবাজারে।

জানা যায়, ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার সন্তান মুস্তাফিজ রাজধানীর কবি নজরুল সরকারি কলেজে বাংলা বিভাগের অনার্স ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। কওমি মাদরাসায় পড়াশোনা শেষ করে তিনি উচ্চতর ডিগ্রির জন্য কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন।

তার দীর্ঘদিনের সহকারী মাহমুদুল হক জালীস বলেন, ‘তিনি অত্যন্ত নরম, ভদ্র এবং বিনয়ী ছিলেন। সব সময় হাসিমুখে কথা বলতেন। সব কাজে পারদর্শী ছিলেন। তার এমন চলে যাওয়া মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে।’

অপর সহকারী সাঈদুজ্জামান নূর বলেন, ‘তার মতো অমায়িক এবং মিশুক মানুষ খুব কমই ছিলেন। সব সময় ইসলামের পথে জীবন যাপনের চেষ্টা করতেন। তার আকস্মিক বিদায়ে কষ্ট পাচ্ছি অনেক।’

কোরআন সুন্নাহ মাল্টিমিডিয়ার পরিচালক মাওলানা লুৎফর রহমান বলেন, ‘মুস্তাফিজ দীর্ঘদিন আমার অফিসে কাজ করেছেন। তিনি খুবই কর্মঠ এবং যোগ্যতাসম্পন্ন ছিলেন। যেকোনো কাজে বিচক্ষণতার পরিচয় দিতেন। তার এমন মৃত্যুতে আমরা শোকাহত।’

এসইউ/জিকেএস

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]