ঐতিহাসিক ফিরোজ শাহ কোটলা এখন অরুণ জেটলি স্টেডিয়াম

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:১৮ এএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

দিল্লি সালতানাতের বিখ্যাত সুলতান ফিরোজ শাহর দুর্গের নামেই নামকরণ করা হয়েছিল বিখ্যাত ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামের। কোটলা শব্দটির অর্থই হচ্ছে দুর্গ। কলকাতার ইডেন গার্ডেনের পর ভারতের সবচেয়ে পুরাতন স্টেডিয়াম হচ্ছে ফিরোজ শাহ কোটলা।

ইতিহাসসমৃদ্ধ সেই ঐতিহাসিক স্টেডিয়ামের নামও এবার বদলে দিলো নরেন্দ্র মোদি সরকার। বর্তমান ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতা, ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির নামে রাখা হলো ফিরোজ শাহ কোটলার নাম। এ বিষয়ে গত মাসের শেষ দিকেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দিল্লি অ্যান্ড ডিস্ট্রিক্ট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (ডিডিসিএ)।

সম্প্রতি মৃত্যুবরণ করেন ভারতের প্রবীণ রাজনীতিবিদ অরুণ জেটলি। তার মৃত্যুর তিনদিনের মধ্যেই ডিডিসিএ সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামের নাম পরিবর্তন করে, সংস্থাটির সাবেক সভাপতি অরুণ জেটলির নামে করার। সে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গতকাল (বৃহস্পতিবার) আনুষ্ঠানিকভাবে বদলে ফেলা হলো ফিরোজ শাহ কোটলার নাম।

ফিরোজ শাহ কোটলার নাম পরিবর্তনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং তার সহধর্মিনী আনুশকা শর্মা। নাম বদলের অনুষ্ঠানেই স্টেডিয়ামের একটি স্ট্যান্ডের নামকরণ করা হয়েছে কোহলির নামে। যেটির উদ্বোধন করেছেন কোহলি নিজেই।

নাম পরিবর্তনের উদ্যোগ প্রসঙ্গে ডিডিসিএ সভাপতি রজত শর্মা বলেছিলেন, ‘অরুণ জেটলির সমর্থন ও অনুপ্রেরণায় বিরাট কোহলি, বিরেন্দর শেবাগ, গৌতম গম্ভির, আশিস নেহেরা, রিশাভ পান্তের মতো ক্রিকেটাররা ভারতকে গর্বিত করেছে। আমরা তার অবদান সবসময় শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবো।’

ডিডিসিএ সভাপতি (১৯৯৯ থেকে ২০১৩) থাকাকালীন সময়ে জেটলি ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামের পরিকাঠামো বদলে দেন। আধুনিকীকরণের পর কোটলা স্টেডিয়াম দর্শকদেরও কাছে ভারতের অন্যতম সেরা হয়ে ওঠে। আসন বাড়ানোর পাশাপাশি ড্রেসিংরুমের চেহারাও বদলে দিয়েছিলেন জেটলি।

তবে ফিরোজ শাহ কোটলায় নয়, নাম পরিবর্তনের অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয়েছে জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়ামে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি সভাপতি এবং ভারতের বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়াল, কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেণ রিজিজুর এবং বিসিসিআইয়ের কর্তাব্যক্তিরা।

এসএএস/এমএস