নূর উদ্দিনকে গ্রেফতারের বর্ণনা দিলেন প্রত্যক্ষদর্শী শফিকুল

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৪:৪৬ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০১৯

ফেনীর মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে মারার অন্যতম আসামি ও অভিযুক্ত অধ্যক্ষ এ এস এম সিরাজ উদ-দৌলার মুক্তি দাবিতে আন্দোলনের নেতৃত্বদাতা নূর উদ্দিনকে ময়মনসিংহের ভালুকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভালুকার সিডস্টোর থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) একটি সাদা পোশাকধারী বিশেষ টিম।

প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় শ্রমিক নেতা শফিকুল ইসলাম জানান, শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১০টার দিকে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে আমার মোবাইলে কল আসে। ফোনে আমাকে সিডস্টোরে অবস্থিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের অফিসে আসতে বলে। পরে আমি সেখানে গিয়ে তাদের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলি। কথা বলার এক পর্যায়ে তারা ফেনীর সোনাগাজীর আকবর নামের এক লোকের ব্যাপারে জানতে চান। তখন আমি তাদেরকে বলি আকবর নামে এক লোক সিডস্টোরের আমতলী এলাকার আব্দুল মজিদের কাছ থেকে চার বছর আগে জমি কিনে টিনশেডের একটি বাড়ি করেছেন। পরে তারা আমাকে নিয়ে আকবরের বাড়িতে যান। সেখানে গিয়ে আকবরের বাড়ির একটি ঘর থেকে নূর উদ্দিনকে গ্রেফতার করে। এ সময় আকবর বাড়িতে ছিলেন না। পরে নূর উদ্দিনকে নিয়ে পুলিশ দুটি সাদা রঙের গাড়িতে করে ঢাকার পথে রওনা দেন। তারা নিজেদেরকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) পুলিশের পরিচয় দেন।

শফিকুল আরও জানান, আকবরের গ্রামের বাড়ি ও নূর উদ্দিনের বাড়ি ফেনীর সোনাগাজীর একই এলাকায়। সেই সূত্রে ধরে গত রাতের কোনো এক সময় নূর উদ্দিন আকবরের বাড়িতে আশ্রয় নেন। তবে এ অভিযানের ব্যাপারে পিবিআইয়ের কোনো কর্মকর্তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন ভালুকা থেকে নূর উদ্দিনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নূর উদ্দিনকে গ্রেফতার করে পিবিআই সদস্যরা ঢাকা কার্যালয়ে নিয়ে গেছে।

এমএএস/পিআর

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :