আমরা কোনো ক্যাসিনোর অনুমোদন দিইনি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৪৯ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, আমরা কোনো ক্যাসিনোর অনুমোদন দিইনি। যারা এ ব্যবসা করছেন তারা অবৈধভাবে ব্যবসা বসিয়েছিলেন। তিনি বলেন, যদি কেউ ক্যাসিনোর ব্যবসা করতে চান, তাহলে তারা আবেদন করবেন, যদি সম্ভব হয় তাদের অনুমোদন দেয়া হবে। আমরা বারের অনুমোদন দিচ্ছি। তবে যাচাই-বাছাই করে সেসব অনুমোদন দেয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘নারীর ক্ষমতায়নে শেখ হাসিনা’ শীর্ষক এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। এ ছাড়া অন্যদের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ও সাবেক বিচারপতি সামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক উপস্থিত ছিলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সবসময় অন্যায়ের প্রতিবাদকারী। যারা অন্যায় করেন প্রধানমন্ত্রী সর্বদা তাদের বিরুদ্ধে কথা বলেন ও দমন করার পরামর্শ দেন। তিনি কাউকে ছাড় দেন না, অন্যায় করলে তাকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে, সে যেই হোক, তার বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নেব।’

অনেক আগে থেকেই ঢাকায় অনেকে লুকিয়ে ক্যাসিনোর ব্যবসা করে আসছিলেন জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘সে সময় এমন দু-তিনটি অবৈধ প্রতিষ্ঠান গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। এরপর আবারো এ বিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য পাওয়ার পর নতুন করে অভিযান চালিয়ে সেগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘যদি কেউ বৈধভাবে ক্যাসিনোর ব্যবসা করতে চান তবে আমাদের কাছে আবেদন করুক, আমরা যাচাই-বাছাই করে অনুমোদন দেব। বর্তমানে আমরা বারের লাইসেন্স দিচ্ছি, তারা বৈধভাবে ব্যবসা করছে। তেমনিভাবে আমরা ক্যাসিনোর অনুমোদন দিতে রাজি আছি। তবে কেউ যদি অনুমোদন ছাড়া এ ধরনের ব্যবসা করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

বিশেষ অতিথি প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ বলেন, ‘একসময় নারীদের প্রধান স্থান ছিল রান্নাঘর। সেখান থেকে বেরিয়ে আজ নারীরা সব স্থানে পুরুষদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে নারীরাই এগিয়ে রয়েছে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য তা সম্ভব হয়েছে। এ কারণে দেশ-বিদেশে প্রধানমন্ত্রী প্রশংসিত হচ্ছেন।‘

আ আ স ম আরেফিন বলেন, ‘নারী উন্নয়নের মূলমন্ত্র হচ্ছে শিক্ষা, সে সুযোগ নিশ্চিত হওয়ায় নারীরা আজ অনেক এগিয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে অধিক গুরুত্ব দিয়েছেন বলে আজ নারীরা অনেক এগিয়ে গেছেন।’

এমএইচএম/এসআর/এমকেএইচ

টাইমলাইন