বাজেটকে ইতিবাচক বললেন বি. চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৯ পিএম, ১৪ জুন ২০১৯

বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট এবং যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী প্রস্তাবিত ২০১৯-২০ বাজেটকে ইতিবাচক হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তবে বাজেটে মোবাইল ফোনে কথা বলার খরচ, সঞ্চয়পত্রের লাভে দ্বিগুণ কর, কালো টাকা সাদা করার সুযোগ, ব্যাংক সংস্কার এবং শিক্ষার উন্নয়নে দৃঢ় পদক্ষপ না থাকার কথা সরকারকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন সাবেক এ রাষ্ট্রপতি।

রাজধানীর বাড্ডায় বিকল্পধারার কার্যালয়ে শুক্রবার বিকল্পধারা ও যুক্তফ্রন্টের যৌথ সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন বি. চৌধুরী।

উপজেলায় ট্যাক্স সেন্টার করার প্রস্তাবের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এটা সরকারের একটি ভালো উদ্যোগ।’ ক্যান্সারের ওষুধের দাম কমানোর প্রস্তাবের জন্যও সরকারকে সাধুবাদ জানান তিনি।

বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘বাজেটের বিস্তারিত নিয়ে যুক্তফ্রন্টের উদ্যোগে অচিরেই একটি গোল টেবিল বৈঠকের আয়োজন করা হবে।’

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান এমপি, বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য শমসের মবিন চৌধুরী, বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং যুক্তফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়ক গোলাম সারোয়ার মিলন, বিএলডিপির চেয়ারম্যান নাজিমউদ্দিন আল আজাদ, বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. রফিকুল ইসলাম চৌধুরী, এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তুজা, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া, বিকল্পধারার সহ-সভাপতি এনায়েত কবীর, জনদলের ভাইস চেয়ারম্যান মোকলেসুর রহমান হাবিব, ইউনাইটেড মাইনরিটি ফ্রন্টের চেয়ারম্যান দীলিপ কুমার দাস, বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান হামদুল্লা আল মেহেদী, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ডা. এমএ মুকিত, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের সংগঠন প্রধান আবু লায়েস মুন্না, বাগসদের সভাপতি সরদার শামস আল মামুন প্রমুখ।

এইউএ/এনডিএস/পিআর

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :