মিন্নিকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে কাগজে স্বাক্ষর নেয় নয়ন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরগুনা
প্রকাশিত: ০৫:০৯ পিএম, ২৮ জুন ২০১৯

বরগুনায় স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে স্বামী রিফাত শরীফকে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় তোলপাড় সারাদেশ। এ ঘটনা নিয়ে ফেসবুকে নানা রকম কথা বলছে লোকজন। কেউ বলছেন- নিহত রিফাত শরীফের স্ত্রী মিন্নির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল খুনি নয়ন বন্ডের। আবার কেউ বলছেন- রিফাত শরীফের আগে মিন্নির সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল নয়ন বন্ডের। ফেসবুকে মিন্নির সঙ্গে নয়ন বন্ডের কয়েকটি ছবি ছড়িয়ে পড়ায় এ বিতর্ক চলছে। এসব বিষয় নিয়ে শুক্রবার জাগো নিউজের সঙ্গে কথা বলেন নিহত রিফাত শরীফের স্ত্রী মিন্নি।

আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি জাগো নিউজকে বলেন, নয়ন আমাকে খুব উত্ত্যক্ত করতো। আমাকে হুমকি দিত এবং অস্ত্র দেখিয়ে ভয় দেখাত। আমার ভাই কলেজ রোড এলাকার একটি স্কুলে পড়ে। নয়ন আমার স্কুল পড়ুয়া ভাই এবং বোনকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। আমার বাবাকেও বিভিন্ন সময়ে হুমকি দিত। একদিন অস্ত্রের মুখে আমাকে জিম্মি করে একটি বাসায় নিয়ে যায় নয়ন। পরে সেখানে বসে একটি কাগজে আমার স্বাক্ষর নেয় সে। তবে সেই স্বাক্ষর দিয়ে নয়ন কিছু করেছে কি-না আমি জানি না।

তিনি আরও বলেন, যারা আমার নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নোংরা মন্তব্য করেছে, আমি তাদের শাস্তি চাই।

মিন্নি বলেন, আমার বিয়ে হয়েছে একমাত্র রিফাত শরীফের সঙ্গে। এছাড়া আমার আর কখনো কারও সঙ্গে বিয়ে হয়নি। যেহেতু বিয়েই হয়নি, ডিভোর্স হওয়ার কোনো প্রশ্নই আসে না। রিফাতই আমার স্বামী এবং এটাই সত্য। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটাই দাবি করি, যারা আমার স্বামীকে হত্যা করেছে আমি তাদের ফাঁসি চাই।

রিফাতের ওপর হামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি যখন আমার স্বামীকে বাঁচানোর চেষ্টা করেছি তখন একটি মানুষও এগিয়ে আসেনি। কেউ আমার পাশে দাঁড়ায়নি। আমি অস্ত্রের সামনে গিয়ে আমার স্বামীকে রক্ষা করতে চেষ্টা করেছি, কিন্তু আমি পারিনি।

সাইফুল ইসলাম মিরাজ/আরএআর/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]