কাশ্মীরে বোমা ফেলেছে পাক জঙ্গি বিমান : পিটিআই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৪৯ পিএম, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

আকাশসীমা লঙ্ঘন করে ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরে পাকিস্তানি জঙ্গি বিমান অনুপ্রবেশ করেছে বলে অভিযোগ নয়াদিল্লির। বুধবার সকালের দিকে জম্মু-কাশ্মীরের রাজৌরি ও নওশেরা সেক্টরের আকাশসীমায় অনুপ্রবেশ করে। পরে ভারতীয় বিমানবাহিনীর টহল বিমানের ধাওয়ায় পালিয়ে যাওয়ার সময় রাজৌরি সেক্টরে পাক বিমান থেকে বোমা নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই বলছে, আকাশসীমা লঙ্ঘন করে পাকিস্তানি বিমান বাহিনীর বিমান জম্মু-কাশ্মীরের রাজৌরি সেক্টরে অনুপ্রবেশ করেছে। ভারতীয় সেনাবাহিনীর ঘাঁটির কাছে বোমা ফেলেছে। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

দেশটির জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা বলেছেন, ভারতীয় বিমানবাহিনীর ধাওয়ায় পাকিস্তানি ওই জঙ্গিবিমান পালিয়ে গেছে। তবে রাজৌরিতে সেনাবাহিনীর ঘাঁটি লক্ষ্য করে পাক বিমান থেকে বোমা নিক্ষেপ করা হলেও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।

পাক আইএসপিআরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল গফুর বলেছেন, আকাশসীমা লঙ্ঘন করে পাকিস্তানে অনুপ্রবেশ করায় ভারতের দুটি যুদ্ধবিমানে গুলি চালিয়ে ভূপাতিত করা হয়েছে। এর মধ্যে একটি বিমান পাক অধিকৃত কাশ্মীরে এবং অন্যটি ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে ভুপাতিত হয়। ভূপাতিত ভারতীয় বিমানের এক পাইলটকে গ্রেফতার করেছে পাক সেনাবাহিনী।

এদিকে, বুধবার সকালের দিকে ভারতীয় বিমান বাহিনীর যুদ্ধ বিমান এমআই-১৭ বিধ্বস্ত হয়ে দুই পাইলট নিহত হয়েছে। একদিন আগে মঙ্গলবার ভোর সাড়ে তিনটার দিকে কাশ্মীর সীমান্ত থেকে ৮০ কিলোমিটার দূরে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে জয়েশ-ই-মোহাম্মদ জঙ্গিগোষ্ঠীর ঘাঁটিতে অভিযান পরিচালনা করে ভারতের বিমান বাহিনী ।

ভারত বলছে, ওই অভিযানে জয়েশ-ই-মোহাম্মদের অন্তত ৩০০ জঙ্গি নিহত হয়েছে। তবে পাকিস্তানের দাবি, ভারতের অভিযানে কোনো হতাহতের ঘটনাই ঘটেনি। বালাকোটের বাসিন্দারা বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, তারা গভীর রাতে প্রচণ্ড শব্দ শুনেছেন। তবে এতে কেউই নিহত হয়নি।

এদিকে, বুধবার সকালের দিকে কাশ্মীরের সোপিয়ানে ভারতীয় নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে অন্তত দুই জঙ্গি নিহত হয়েছে। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভয়াবহ আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় ভারতের কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনীর (সিআরপিএফ) কমপক্ষে ৪৬ সদস্য নিহত হয়েছেন।

ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী জয়েশ-ই-মোহাম্মদ। এরপর থেকেই ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এসআইএস/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :