পরীমনির বিষয়ে যা বললেন জায়েদ খান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৫৮ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০২১

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনির সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডে শিল্পী সমিতি তার পাশে থাকবে না বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। তিনি বলেন, শিল্পী সমিতি শিল্পীদের ভালো কাজে পাশে থাকবে, খারাপ কাজে নয়। আমি জায়েদ খানও যদি খারাপ কিছু করি তাহলে আমার দায়ভার কেন শিল্পী সমিতি নেবে?

শুক্রবার (৬ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপির ডিবি কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

নায়ক জায়েদ খান বলেন, শিল্পীদের কেউ যদি অপকর্মে জড়িত হয়ে যায় তাহলে এর দায় ওই শিল্পীর নিজের। মানুষ আমাকে খারাপ করার জন্য চেষ্টা করবেই কিন্তু দিন শেষে আমি অভিনয় দিয়ে, ভালোবাসা দিয়ে দর্শক হৃদয় জয় করব। কোনো শিল্পী যদি আর্থিক লোভে জড়িত হয়ে যায় তার দায়ভার নিজের, শিল্পী সমিতির নয়।

তিনি বলেন, এফডিসি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে তৈরি। শিল্পী সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন নায়ক রাজ রাজ্জাক। পাশাপাশি আরও ছিলেন নায়ক ফারুক ভাই, সোহেল রানা ভাই ও উজ্জ্বল ভাই। শিল্পী বলতে বোঝায় সমাজের বিবেক, শিল্পীরা থাকবে লুকায়িত, শিল্পীকে দেখে মানুষ আইডল মনে করবে। যার ছবি মানিব্যাগে থাকবে, যার ছবি বাসায় থাকবে। এমন দু-একজন শিল্পীর জন্য যদি আমাদের সমস্ত শিল্পীদের সম্মানহানি হয়, সুনাম নষ্ট হয়-তা আমরা শিল্পী সমাজ কখনওই মেনে নেবো না। আমরা আগামীকাল শনিবার বিকেল ৩টায় কার্যনির্বাহী কমিটির মিটিং ডেকেছি।

সিনিয়র যারা শিল্পী তাদের সঙ্গেও কথা বলেছি এবং উপদেষ্টা কমিটি মিলিয়ে মিটিংটি অনুষ্ঠিত হবে। মিটিং শেষে বিকেল ৪টার সময় আমাদের অবস্থান কিংবা সিদ্ধান্তের কথা সাংবাদিকদের জানিয়ে দেব।

এছাড়াও আজকেও আমরা সংবাদ সম্মেলন করেছি। চিত্রনায়িকা একার কথা উঠেছিল। কিছুদিন আগে হাতিরঝিল থানায় তিনি গ্রেফতার হন। এরপর পরীমনির এই অবস্থা।

যাদের বিরুদ্ধে আপনারা ব্যবস্থা নিচ্ছেন ও নিবেন তাদের বিষয়ে আগে কখনও অভিযোগ পেয়েছেন কি-না? এমন প্রশ্নের জায়েদ বলেন, এর আগে এদের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে আগেই ব্যবস্থা নিতাম।

টিটি/জেএইচ/এএসএম

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]