যে কারণে ২ মিনিটের নীরবতা পালন করছে নিউজিল্যান্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১৯ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৯

ক্রাইস্টচার্চের আল নূর ও লিনউড মসজিদে শেতাঙ্গ সন্ত্রাসীর হামলায় নিহত ৫০ মুসল্লির স্মরণে নিউজিল্যান্ডে দুই মিনিটের নীরবতা পালন করা হবে আগামী শুক্রবার। সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর অংশ হিসেবে এই দিন দেশটির সরকারি বেতার ও টেলিভিশনে জুমআর নামাজের আজানও সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

বুধবার ক্রাইস্টচার্চের একটি স্কুল পরিদর্শনে গিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন এ ঘোষণা দিয়েছেন। দেশটির ইংরেজি দৈনিক নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড বলছে, স্বাভাবিকভাবে যে কোনো প্রাণঘাতী নৃশংসতার পর এক মিনিটের নীরবতা পালনের রেওয়াজ থাকলেও ক্রাইস্টচার্চ হামলার ভয়াবহতার কারণে এবার দুই মিনিটের নীরবতা পালন করা হবে।

এর আগে ২০১০ সালে পাইক রিভার বিস্ফোরণে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সর্বশেষ দুই মিনিটের নীরবতা পালন করে নিউজিল্যান্ড।

জেসিন্ডা আর্ডার্ন বলেন, ভয়াবহ হামলার এক সপ্তাহ পূর্তির দিনে কিউইরা তাদের শোক জানাতে চায়। এর অংশ হিসেবে আগামী শুক্রবার দুই মিনিটের নীরবতা পালন করা হবে। এই অনুষ্ঠান নিজিউল্যান্ড টেলিভিশন ও রেডিও নিউজিল্যান্ড সরাসরি সম্প্রচার করবে।

গত শুক্রবার আল নূর মসজিদে হামলায় ক্রাইস্টচার্চের ক্যাশমেরে হাই স্কুলের দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। এই স্কুলের শিক্ষার্থীদের সান্ত্বনা দিতে বুধবার সেখানে যান তিনি। শুক্রবারের হামলার পর ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয়বারের মতো সেখানে গেলেন দেশটির এই প্রধানমন্ত্রী।

জেসিন্ডা আর্ডার্ন বলেছেন, হামলার সময় আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা যা দেখেছেন, তাতে কোনো কিছুই তাদের স্বাভাবিক করতে পারে না। কিন্তু তারা পেশাদারিত্বের সঙ্গে সেই পরিস্থিতি মোকাবেলা করেছে। মসজিদে হতাহতদের প্রথম সহায়তা করেছিল পুলিশ।

আল নূর মসজিদ আক্রান্ত হওয়ার পর সেখানে সবার আগে পৌঁছানো পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রথমবারের মতো বুধবার সাক্ষাৎ করেন নিউজিল্যান্ডের এই প্রধানমন্ত্রী। সেখানে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করায় তিনি পুলিশ কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান।

গত শুক্রবার অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত উগ্রপন্থী শেতাঙ্গ সন্ত্রাসী বেন্টন ট্যারান্ট ক্রাইস্টজচার্চের দুটি মসজিদে আধা-স্বয়ংক্রিয় বন্দুক নিয়ে নৃশংস হত্যাযজ্ঞ চালায়। এতে অন্তত ৫০ জন মুসল্লির প্রাণহানি ঘটে। এছাড়া গুলিতে আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরো কমপক্ষে ২৯ জন। এদের মধ্যে ৮ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সূত্র : স্টাফ. নিউজিল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড।

এসআইএস/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]