ক্রাইস্টচার্চে নিহতদের লাশ হস্তান্তর শুরু করেনি নিউজিল্যান্ড

কূটনৈতিক প্রতিবেদক কূটনৈতিক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:০৯ পিএম, ১৮ মার্চ ২০১৯

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় সর্বমোট পাঁচজন বাংলাদেশি নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. সুফিউর রহমান।

অপর একটি কূটনৈতিক সূত্র জানায়, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে দাফনের আনুষ্ঠানিকতা বাবদ নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ১০ হাজার করে মার্কিন ডলার সহায়তা দেবে নিউজিল্যান্ড সরকার। এ বিষয়ে এখনও আলোচনা চলছে।

ক্যানবেরা থেকে সুফিউর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, নিউজিল্যান্ড কর্তৃপক্ষ থেকে তথ্য পেতে কিছুটা দেরি হওয়ায় নিহত বাংলাদেশিদের সংখ্যা নিয়ে কিছুটা বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছি। তবে সব শেষ খবর হলো ওই বর্বর হামলায় পাঁচজন বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন।

এদিকে সোমবার থেকে মরদেহ হস্তান্তরের কথা থাকলেও নিউজিল্যান্ড কর্তৃপক্ষ তা শুরু করতে পারেনি বলে জাগো নিউজকে জানিয়েছেন দেশটিতে অবস্থানরত বাংলাদেশের অনারারি কনসাল শফিকুর রহমান ভুঁইয়া।

তিনি বলেন, আজ থেকে নিউজিল্যান্ড কর্তৃপক্ষের লাশ হস্তান্তরের কথা বললেও সেটা তারা করতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন। দেশটির পররাষ্ট্র দফতরের সঙ্গে বৈঠকে আমাদের জানানো হয়েছে- হতাহতদের আনুষ্ঠানিক তালিকা প্রকাশ করা হবে বুধবার।

এর আগে রোববার পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম সাংবাদিকদের জানান, নিহতদের মরদেহ ফিরিয়ে আনতে সরকার তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে যাবেন। দেশটির সরকার নিহত বাংলাদেশিদের প্রত্যেকের পরিবারের অন্তত একজন সদস্যকে সেদেশে নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে শফিকুর রহমান বলেন, এ বিষয়টি নিয়ে আমরা এখনও আলোচনা করছি।

তবে হাইকমিশনার সুফিউর বলেন, ‘আমাদের দূতাবাসের টিম ওখানে কাজ করছে। তাই লাশ ফেরত নিতে পরিবারের কারও আসাটা আবশ্যিক নয়। দেশটির কর্তৃপক্ষ লাশ হস্তান্তর শুরু করলেই নিহত বাংলাদেশিদের লাশ ফেরত পাঠানো হবে।’

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় ক্রাইস্টচার্চের দু'টি মসজিদে হামলা চালায় একজন বন্দুকধারী সন্ত্রাসী। এতে নিহত হন ৫০ জন। হামলাকারী নিজেকে ব্রেনটন ট্যারেন্ট বলে পরিচয় দিয়েছেন। ২৮ বছর বয়সী এই শ্বেতাঙ্গ অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক। তাকে গ্রেফতার করে আদালতে তোলা হয়।

জেপি/এসএইচএস/জেআইএম

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :