ক্ষমা চেয়েও টুইটার অ্যাকাউন্ট রাখতে পারলো না শ্রীলঙ্কা পুলিশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২৯ পিএম, ২৬ এপ্রিল ২০১৯
অভিযুক্ত মার্কিন লেখক ও অধিকারকর্মী আমারা মজিদ

শ্রীলঙ্কা পুলিশের টু্ইটার অ্যাকাউন্ট ডিলিট করে দিয়েছে জনপ্রিয় এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির কর্তৃপক্ষ। ইস্টার সানডের হামলায় মার্কিন এক অধিকারকর্মী জড়িত বলে তার নাম ও ছবি প্রকাশ করার প্রেক্ষিতে তাদের বিরুদ্ধে এমন পদক্ষেপ নেয়া হলো।

শুক্রবার শ্রীলঙ্কা পুলিশের টুইটার অ্যাকাউন্ট ডিলিট করা হয়। এর আগে গত বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কা পুলিশ তাদের টুইটার অ্যাকাউন্টে তিনজন নারী ও দুজন পুরুষের নাম এবং ছবি প্রকাশ করে জানায়, তারা ইস্টার সানডের হামলার সঙ্গে জড়িত বলে সন্দেহ করছে পুলিশ।

পুলিশের সন্দেহ তালিকায় থাকা নারীদের একজন হলেন যুক্তরাষ্ট্রের মুসলিম অধিকারকর্মী আমারা মজিদ। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আসার পর দ্রুত এর প্রতিক্রিয়ায় তিনি টুইট বার্তায় জানান, তাকে মিথ্যাভাবে এর সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে।

তারপর শ্রীলঙ্কা পুলিশ এমন ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চায়। মার্কিন লেখক ও অধিকারকর্মী ওই নারী ‘দ্য ফরেইনারস’ নামে একটি বই লিখেছেন। বইটিতে তিনি ইসলাম সম্পর্কে চলমান ভ্রান্ত ধারণার বিরুদ্ধে কথা বলেছেন।

শ্রীলঙ্কা পুলিশ তাদের এমন ভুলের জন্য ক্ষমা চাইলেও মিথ্যা তথ্য দেয়ার জন্য তাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার তাদের অ্যাকাউন্টট বন্ধ করে দেয়া হয় বলে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শ্রীলঙ্কা পুলিশ ইস্টার সানডের সেই ভয়াবহ হামলার জন্য সন্দেহভাজনদের তালিকায় আমারার ছবি দিয়ে তার নাম ফাতিমা খাদিজা বলে জানায়। বাল্টিমোরে জন্ম নেয়া আমারার বাবা-মা শ্রীলঙ্কার নাগরিক।

এসএ/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :