বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছে হামলাকারী মূলহোতার বাবা ও ২ ভাই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:২৬ পিএম, ২৮ এপ্রিল ২০১৯

শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডেতে ভয়াবহ সিরিজ হামলার পেছনে দায়ী সন্দেহভাজন মূল হোতা জাহরান হাশিমের বাবা এবং দুই ভাই নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে।

অপরদিকে, রাজধানী কলম্বোর সাংরি লা হোটেলে হামলার সময় নিহত হয়েছেন জাহরান হাশিম। দেশটির প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

পুলিশ এবং ওই আত্মঘাতী হামলাকারীর স্বজনরা রোববার রয়টার্সকে জানিয়েছেন, দু'দিন আগে সন্দেহভাজনদের গোপন আস্তানায় হামলা চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। সে সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয় ইস্টার সানডেতে হামলার পেছনে দায়ী মূল হোতা জাহরান হাশিমের বাবা এবং তার দুই ভাই।

জাইনে হাশিম, রিলওয়ান হাশিম এবং তাদের বাবা মোহামেদ হাশিম কে সম্প্রতি একটি ভিডিওতে দেখা গেছে। সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ওই ভিডিওতে তাদেরকে অবিশ্বাসীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের ডাক দিতে দেখা গেছে।

পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, শুক্রবার পুলিশ ও সেনাসদস্য নিয়ে গঠিত যৌথবাহিনীর মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় নিহত ১৫ জনের মধ্যে ওই তিনজন রয়েছে।

sri lonka

ইস্টার সানডের মূলহোতা জাহরান হাশিমের দুলাভাই নিয়াজ শরীফ রয়টার্সকে জানিয়েছেন, একটি ভিডিওতে জাহরান হাশিমের দুই ভাই এবং বাবাকে দেখা গেছে। তবে ওই ভিডিওটি কবে প্রকাশ করা হয়েছে সে বিষয়টি নিশ্চিত নয়। সেখানে দেখা গেছে, ওই তিনজন অবিশ্বাসীদের হত্যার জন্য তাদের অনুসারীদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছেন।

গত রোববার ইস্টার সানডের সকালে কলম্বোর তিনটি গির্জা, তিনটি বিলাসবহুল হোটেল এবং আরও দুই স্থানে সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় প্রায় ২৫০ জন নিহত এবং আরও কমপক্ষে ৫শ জন আহত হন।

রোববারের ওই হামলার পর আরও বেশ কয়েকবার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। দেশটিতে রোববারের হামলার পর থেকেই উচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তল্লাশি ও উদ্ধার অভিযানে প্রায় ১০ হাজার সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

ইতোমধ্যেই দেশটিতে দুটি ইসলামি সংগঠনকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। হামলার ঘটনার পর থেকে এখন পর্যন্ত সন্দেহভাজন হিসেবে ৭৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

টিটিএন/এমএস

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :