রক্তে ভাসছে শ্রীলঙ্কা : শোকাহত সাঙ্গাকারা-কোহলি-শচীন-তামিমরা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:০৪ পিএম, ২১ এপ্রিল ২০১৯

রক্তাক্ত শ্রীলঙ্কা। তিনটি গির্জা আর একাধিক বিলাসবহুল হোটেলে ধারাবাহিক বোমা বিস্ফোরণে কেঁপে কেঁপে উঠছে পুরো শ্রীলঙ্কা। সে সঙ্গে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃত মানুষের সংখ্যা। ১৮৫ পেরিয়ে গেছে নিহতের সংখ্যা। ৫০০’রও বেশি মানুষ আহত। সন্ত্রাসী হামলায় বার বার কেঁপে উঠছে দ্বীপরাষ্ট্রটি। এখনও পর্যন্ত ৮বার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে দেশটিতে।

ইস্টার সানডের প্রার্থনা চলাকালীন সময়কেই বেছে নিয়েছে বর্বর হামলাকারীরা। আজ সকালে এমন মর্মান্তিক বিস্ফোরণের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটাই এখন বড় প্রশ্ন হয়ে দেখা দিয়েছে।

শ্রীলঙ্কায় এমন জঙ্গি এবং বর্বর হামলার ঘটনায় নিন্দার ঝড় উঠেছে সারা বিশ্বজুড়ে। পিছিয়ে নেই ক্রীড়াঙ্গনও। প্রতিবেশী রাষ্ট্রটিতে বিস্ফোরণের ঘটনায় শোকে মুহ্যমান হয়ে পড়েছে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাঙ্গন। সাবেক অধিনায়ক এবং লঙ্কান কিংবদন্তী কুমার সাঙ্গাকারা তো টুইটারেই নিজের চোখের পানি ঢেলে দিচ্ছেন যেন।

সাঙ্গাকারা লিখেছেন, ‘আমি পুরোপুরি বিস্মিত-ক্ষুব্ধ। হৃদয়ের রক্তক্ষরণ হচ্ছে। এমন বর্বর এবং ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডের জন্য ঘৃণা জানানোর ভাষা আমার কাছে নেই। নিহত এবং আহতদের জন্য আমার হৃদয় ভেঙে গেছে। যারা এসব বর্বর হামলার শিকার, তাদের সবাই আমার দোয়া এবং প্রার্থনায় রয়েছে। তাদের সবার প্রতি আমার ভালোবাসা।’

শ্রীলঙ্কার রক্তাক্ত ঘটনায় সমব্যাথি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের তারকা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। তিনি লিখেছেন, ‘শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বোমা হামলার খবর শুনে নিজেকে অসাড় মনে হচ্ছিল। এ ধরনের পাশবিক এবং বর্বর ঘটনার কোনো ঠাঁই এই পৃথিবীতে হতে পারে না। এমনকি এগুলো কোনোভাবেই আমাদের চিন্তা এবং মানবিকতায় ঠাঁই নিতে পারে না।’

শ্রীলঙ্কায় রক্তাক্ত এই হামলায় শোক প্রকাশ করেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও তার ডেপুটি রোহিত শর্মা, সাবেক ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার, পাকিস্তানের মোহাম্মদ হাফিজ, দক্ষিণ আফ্রিকার ডেল স্টেইন থেকে শুরু করে টেনিস তারকা সানিয়া মির্জাও।

শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণের ঘটনায় টুইটারে শোকপ্রকাশ করে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি লেখেন, ‘শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণের ঘটনায় আমরা আতঙ্কিত। মর্মান্তিক ঘটনায় আহত ও নিহতদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।’

শচীন টেন্ডুলকার লিখেছেন, ‘শ্রীলঙ্কার বিভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনা শুনে রীতিমত ক্ষুব্ধ এবং বিস্মিত আমি। এমন সন্ত্রাসী হামলার জন্য কঠোরভাবে ঘৃণা প্রকাশ করছি। ঘৃণা আর সন্ত্রাস কখনোই ভালোবাসা, দয়া এবং সমবেদনার চেয়ে শক্তিশালী নয়।’

কোহলির আগেই তার ডেপুটি রোহিত শর্মা টুইটারে লেখেন, ‘শ্রীলঙ্কার ঘটনায় মর্মাহত ও সমব্যথি। অপূর্ব একটি দেশ।’

দক্ষিণ আফ্রিকার ডেল স্টেইন লেখেন, ‘শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলার খবর শুনে ক্ষুব্ধ এবং মর্মাহত। এতটা সুন্দর এবং শান্তিপূর্ণ একটি দেশে এমন হামলার খবর শুনতে হলো! সত্যিই আমি এটা বিশ্বাস করতে পারছি না। আমাদের চিন্তা এবং প্রার্থণা- সব জায়গাতেই রয়েছেন এই বর্বর হামলায় হতাহত স্থানীয় এবং বিদেশি সবাই।’

ভারতের টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা শ্রীলঙ্কার ঘটনায় এতটাই আতঙ্কিত যে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন, পৃথিবীতে এসব কী ঘটে চলেছে? পাশাপাশি টুইটারে অভিজ্ঞ এই টেনিস তারকা লেখেন, ‘সৃষ্টিকর্তা আমাদের রক্ষা করুন।’

উল্লেখ্য, রোববার সকাল স্থানীয় সময় ৮:৪৫ মিনিট নাগাদ প্রথম বিস্ফোরণটি হয় কলম্বোর কচ্ছিকাড়ের সেন্ট অ্যান্থোনি চার্চে। কাতানার কাটুয়াপিটিয়ার একটি চার্চে এরপর আরও একটি বিস্ফোরণ হয়। এরপর সাংরিলা হোটেল এবং কিংসবারি হোটেলে একের পর এক ধারাবাহিক বিস্ফোরণে রক্তাক্ত হতে থাকে শ্রীলঙ্কা। একটি চিড়িয়াখায়ও বিস্ফোরনের খবর পাওয়া গেছে।

আইএইচএস/পিআর

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :