ভীষণ ক্লান্ত দাঁড়াতে পারছি না, তাই বলে ফুরিয়ে যাইনি!

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:৩১ পিএম, ১৫ মার্চ ২০১৯

‘হতে পারি আমি-আমরা ক্লান্ত, পরিশ্রান্ত, মাথা তুলে দাঁড়াতে পারছি না। তাই বলে ফুরিয়ে যাইনি। নির্লজ্জ প্রশাসন যতক্ষণ না প্রহসনের নির্বাচন বাতিল করবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমরণ অনশন চলবে।

শুক্রবার বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ক্যাম্পাসের রাজু ভাস্কর্যের নিচে ডাকসু নির্বাচন বাতিলের দাবিতে আমরণ অনশনরত আট শিক্ষার্থীর একজন এভাবেই বলছিলেন।

আরেকজন বলেন, ‘আজ বিকেল ৪টায় আমরা ক্যাস্পাসে ভুখা মিছিল বের করব। আমাদের শুভাকাঙ্ক্ষিরা সহমর্মিতা জানিয়ে এতে অংশগ্রহণ করবেন। প্রশাসনের কেউ এখনও সাড়া না দিলেও যতক্ষণ দেহে প্রাণ আছে আমরণ অনশন চলবে।’

southeast

গত ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনকে ‘প্রহসনের’ নির্বাচন আখ্যা দিয়ে পুনঃনির্বাচনের দাবিতে বামজোটের আটজন প্রার্থী ও সমর্থকরা মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করছেন।

সরেজমিন দেখা গেছে, গত তিনদিন ধরে অনশনরতদের বেশিরভাগই ভীষণ ক্লান্ত, পরিশ্রান্ত। ক্ষুধা পেটে রাতে ভালো ঘুম না হওয়ায় সবার চোখের নিচে কালি জমেছে। সংখ্যায় কম হলেও দাবি আদায়ে তারা সংকল্পবদ্ধ।

গত তিনদিনে প্রশাসনের কেউ এসেছেন কি না- জানতে চাইলে তারা না সূচক জবাব দেন। তবে কয়েকজন শিক্ষার্থী সহানুভূতি জানাতে এসেছিলেন বলে জানান।

du-3.jpg

অনশনকারীদের সময় কাটছে বই পড়ে ও ফেসবুকিং করে। তারা বলেন, সংখ্যায় কম হলেও আমাদের দাবি ন্যায্য। ফলে আন্দোলন সফল হবেই।

উল্লেখ্য, ডাকসু নির্বাচনে সহ-সভাপতি (ভিপি) নির্বাচিত হন কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুর। তিনি পান ১১ হাজার ৬২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন পান ৯ হাজার ১২৯ ভোট।

নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে জয়লাভ করেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। এ ছাড়া সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) নির্বাচিত হন ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন।

এমইউ/জেডএ/এমএস

টাইমলাইন  

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :