একান্ত সাক্ষাৎকারে আইভীর কিছু কথা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:৪১ এএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২২

দেশব্যপী বহুল আলোচিত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনী প্রচারণার সময় শেষ হয়েছে। রাত পোহালেই শুরু হবে ভোটগ্রহণ। শুরু হয়ে গেছে কাউন্টডাউন। এখন শুধু অপেক্ষার পালা। প্রার্থীরা রয়েছেন জয় পরাজয়ের মাঝামাঝি অবস্থানে। আর এই সময় জাগো নিউজের মুখোমুখি হয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। তার এই সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারটি পাঠকদের উদ্দেশ্য তুলে ধরা হলো-

নির্বাচন কেমন হবে বলে মনে করছেন?

আমি মনে করি যে, নির্বাচন সুষ্ঠু সুন্দর ও স্বাভাবিক হবে। নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। স্বাভাবিক পরিবেশ যেন বজায় থাকে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে বলতে চাই সকাল থেকেই যেন উৎসবমুখর একটা পরিবেশ থাকে।

এবার জয়ী হলে কোন কাজটি আগে করবেন?

অনেকগুলো কাজই চলমান রেখে আসছিলাম। বিজয়ী হলে একসঙ্গে অনেক কাজই করতে হবে। তার মধ্যে প্রাধান্য দেবো সবচেয়ে বেশি কদমরসূল ব্রিজে। আর ৬টি মেগা প্রজেক্ট চলমান ছিল। সেসকল প্রজেক্ট সম্পূর্ণভাবে শেষ করে প্রধানমন্ত্রীকে দিয়ে উদ্বোধন করার পরিকল্পনা আছে।

দীর্ঘদিন মেয়র ছিলেন, প্রিয় কোনো কাজ অসমাপ্ত রয়েছে বলে মনে করেন কি?

আমি আসলে গাছপালা খুবই পছন্দ করি। শেখ রাসেল পার্কের এখনও কিছু কাজ বাকি আছে। অনেকগুলো পার্ক করতে চাই। নদীর ওপারে প্রচুর জায়গা আছে। এপারেও কিছু জায়গা অ্যাকওয়ার করে গাছ লাগাবো। সবুজায়ন করবো। পুকুরের পানির প্রতি আমার একটা টান আছে। ভালো লাগে প্রকৃতি গাছপালা পশুপাখি। প্রাকৃতিকভাবে কিছু বাগান পার্ক নিয়ে কাজ করতে চাই।

ভোটারদের উদ্দেশ্যে যা বলতে চান-

ভোটারদেরকে আহ্বান জানাবো আপনারা ভোটকেন্দ্রে নির্বিঘ্নে আসবেন। আমাকে আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। আমি আপনাদের কাজগুলো চলমান রাখতে চাই। একটা কথা বলতে চাই আমি ঈমানের সহিত কাজগুলো করেছি, সেবা করেছি। কখনও কোনো অন্যায় কাজের সঙ্গে জড়িত ছিলাম না। দল মতের ঊর্ধ্বে উঠে কাজ করেছি। জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে কাজ করেছি। কখনও দলবাজি করি নাই। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অত্যাচারের বিরুদ্ধে কথা বলেছি।
নারায়ণগঞ্জের মানুষের জন্য আমার জীবনকে বিপন্ন করে কাজ করেছি। সুতরাং আমাকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি এবং আগামী পাঁচ বছর কাজ করার সুযোগ দিন।

মোবাশ্বির শ্রাবণ/এফএ/এমএস

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]