ভোটকেন্দ্রে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের হাতাহাতি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:১৭ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২২
হাজি সিরাজ উদ্দিন মেমোরিয়্যাল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বন্দর ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের হাজি সিরাজ উদ্দিন মেমোরিয়্যাল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে লাটিম ও ঠেলাগাড়ি প্রতীকের সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। সকাল সাড়ে ১০টায় কেন্দ্রের সামনের সড়কে এই ঘটনা ঘটে।

এই ওয়ার্ডে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ লাটিম ও মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কাউসার ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করছেন। সাইফুদ্দিন আহমেদ এই ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লাটিম প্রতীকের কয়েকজন সমর্থক কেন্দ্রের ভেতরে ঢুকে ভোটারদের কাছে ভোট চাচ্ছিলেন। এ সময় ঠেলাগাড়ি পক্ষের একজন সমর্থক তা নিয়ে পুলিশের কাছে আপত্তি জানান। এতে লাটিম প্রতীকের সমর্থকরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। এসময় দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ এসে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় কেন্দ্রের বাইরে থাকা ভোটাররা ভয় পেয়ে কেন্দ্র ছেড়ে চলে যান।

jagonews24

ঠেলাগাড়ি প্রতীকের সমর্থক মো. দীপু পুলিশের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ এনে বলেন, পুলিশের সামনেই লাটিম প্রতীকের সমর্থকরা কেন্দ্রে ঢুকে নারী ভোটারদের কাছে ভোট চাচ্ছিলেন। তারা কেন্দ্রের বাইরে এবং ভেতরে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করেন। আমরা প্রতিবাদ জানাতেই তারা আমাদের ওপর হামলা করেছেন।

লাটিম মার্কার প্রতিনিধি শাহিন আহমেদ সৌরভ জাগো নিউজকে বলেন, আমাদের আত্মীয়-স্বজন আসলে তো আমরা কেন্দ্রের ভেতর নিয়ে যেতেই পারি। একজনকে এগিয়ে দিতে কেন্দ্রের ভেতরে গেলে কিছু ছেলে এসে কর্তব্যরত পুলিশকে গালাগাল করেন। এসময় তারা এসে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেন।

এই কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) শোভন ভট্টাচার্য অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়েছে। আমরা তাদের ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছি। পরে স্ট্রাইকিং ফোর্স এসে কেন্দ্রের সামনে অবস্থান নেয়। এখন পরিস্থিতি শান্ত আছে।

এএএম/ইএ/এএসএম

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]