না’গঞ্জের নির্বাচন জাতীয় পর্যায়ে উদাহরণ সৃষ্টি করবে: কৃষিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৮ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২২

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন হবে অত্যন্ত সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ, যা জাতীয় পর্যায়ে একটি উদাহরণ সৃষ্টি করবে।

তিনি বলেন, সে লক্ষ্যে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করেছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও সুন্দর নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য তাদের অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করবে।

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) কৃষিবিদ প্রয়াত শওকত মোমেন শাহজাহান, কৃষিবিদ আব্দুল মান্নান ও কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশার স্মরণসভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন মন্ত্রী। এ স্মরণসভার আয়োজন করে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন।

এতে অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, সংস্কৃতিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, সরকারদলীয় হুইপ আতিউর রহমান আতিক উপস্থিত ছিলেন।

কৃষিবিদ ড. আওলাদ হোসেনের সঞ্চালনায় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী সভাপতি মো. হামিদুর রহমান, সংসদ সদস্য সাহাদারা মান্নান, অনুপম শাহজাহান জয়, রাগিব হাসান ভাষণ প্রমুখ বক্তব্য দেন। এতে সর্বস্তরের কৃষিবিদরা উপস্থিত ছিলেন।

কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, কৃষিবিদদের অবদান আজ জাতীয় পর্যায়ে স্বীকৃত। স্বল্প জমি থেকে ১৭ কোটি মানুষের খাদ্যের যোগান দেওয়াতে কৃষিবিদদের ভূমিকা অনন্য। জাতীয় রাজনীতি ও ক্রান্তিলগ্নে অতীত যেভাবে তারা ভূমিকা রেখেছে, সামনের দিনগুলোতেও সে ভূমিকা পালন করতে হবে। দেশের বিরূদ্ধে এখনো ষড়যন্ত্র হচ্ছে, মিথ্যাচার ও অপপ্রচার হচ্ছে। এসব অপশক্তিকে মোকাবিলায় কৃষিবিদদের ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসতে হবে। কৃষিবিদদের সুনাম অক্ষুণ্ন রাখতে হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আমির হোসেন আমু বলেন, প্রয়াত কৃষিবিদ শওকত মোমেন শাহজাহান, কৃষিবিদ আব্দুল মান্নান ও কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশার সঙ্গে অনেক আন্দোলন সংগ্রাম করেছি। তাদের সঙ্গে আমার গভীর সম্পর্ক ছিল। রাজনীতি সম্পর্কে তাদের অত্যন্ত স্বচ্ছ ধারণা ছিল, সৎসাহস ও দৃঢ়তা ছিল। তিনি আরও বলেন, দেশের কৃষিবিদরা যেমন জাতীয় রাজনীতি ও নেতৃত্বে অবদান রেখেছেন, তেমনি বিভিন্ন জায়গায়, বিভিন্ন পেশাগত কাজে দক্ষতা ও সফলতার পরিচয় দিচ্ছেন। এটি কৃষিবিদদের জন্য, আমাদের জন্য গৌরবের ও সম্মানের।

আমির হোসেন আমু আরও বলেন, জিয়াউর রহমান ময়মনসিংহ ১১জন ছাত্রকে হত্যার মাধ্যমে ছাত্ররাজনীতির ওপর আঘাত করেন। সেই দুঃসময়ে প্রয়াত এ এই তিন নেতা মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে ছাত্ররাজনীতি ধরে রাখেন, সংগঠনকে শক্তিশালী করেন ও ব্যাপ্তি করেন। শুধু তাই নয়, ময়মনসিংহের সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় রাজনীতিতেও সেসময়ে ভূমিকা রাখেন তারা।

এনএইচ/এমএএইচ/এএসএম

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]