‘জীবনের প্রথম ভোট ইভিএমে দিতে পেরে আমি ধন্য’

তৌহিদুজ্জামান তন্ময়
তৌহিদুজ্জামান তন্ময় তৌহিদুজ্জামান তন্ময় , নিজস্ব প্রতিবেদক নারায়ণগঞ্জ থেকে
প্রকাশিত: ০৩:৫১ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২২

নীলিমা আক্তার হেমী। জীবনের প্রথম ভোট দিতে এসেছেন নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ মিজমিজি পশ্চিমপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে। ভোট দেওয়ার পর জাগো নিউজের এ প্রতিবেদকের সঙ্গে তার অনুভূতি ও ইভিএম নিয়ে কথা বলেন হেমী।

তিনি বলেন, ‘এখানে আমি আমার প্রথমবারের মতো ভোট দিয়েছি। আমরা যারা তরুণ প্রজন্মের রয়েছি তারা সবাই ইলেকট্রনিক ডিভাইসের সঙ্গে পরিচিত। এ কারণে আমাদের ভোট প্রদান করতে কোনো সমস্যা হয়নি এবং সময়ও অনেক কম লেগেছে। আমার এক থেকে দুই মিনিট সময় লেগেছে ভোট প্রদান করতে। ইভিএমে আমি ভোট দিতে পেরে নিজেকে ধন্য এবং গর্বিত মনে করছি।’

এই তরুণী বলেন, ‘কিন্তু যারা মধ্যবয়সী বা বয়স্ক তারা ইভিএমের পদ্ধতিটা বুঝতে একটু সময় লেগেছে। তাদের জন্য কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। তাদের বুঝিয়ে দেওয়া লাগছে। এ কারণে সিরিয়াল অনেক লম্বা হয়ে যাচ্ছে। ডিভাইসের বোতাম চাপার পর সাউন্ডের জন্য তারা মনে করছে এখন কোন বোতাম চাপবে। যারা ডিভাইসের সঙ্গে পরিচিত নয় তাদের পাঁচ থেকে দশ মিনিট করে সময় লাগছে।’

জীবনের প্রথম ভোট এবং সেটি ইভিএমে। এই অনুভূতি কেমন লেগেছে জানতে চাইলে নতুন ভোটার নীলিমা বলেন, ‘এটা খুবই দারুণ অনুভূতি। কম সময়ে ভোট প্রদানের জন্য ইভিএমই সেরা। এছাড়া আমার কাছে মনে হয়েছে এ পদ্ধতিতে একজনের ভোট আরেকজন দেওয়ার সুযোগ নেই বললেই চলে। যেই বোতামে আমি চাপ দিচ্ছি শুধু সেই ভোটটি পাচ্ছেন। আমার মা-খালারা আগে কাগজে সিল মেরে ভোট দিতেন সেই ভোটটি এদিক-ওদিক হওয়ার একটা সুযোগ থাকতো কিন্তু ইভিএমে সেটি নেই।’

ইভিএম সম্পর্কে এই তরুণী বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জে ইভিএমে এই প্রথম ভোট দিচ্ছেন ভোটাররা। আমি মনে করি, প্রার্থীরা যখন বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চান তখন থেকেই তাদের উচিত ভোটারদের ইভিএম সম্পর্কে ধারণা দেওয়া।’

একজনের ভোট আরেকজন দেওয়ার সুযোগ আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘একজন ভোটারের যখন ফিঙ্গারপ্রিন্ট নেওয়া হয় তখন তার ছবিসহ নাম-ঠিকানা মনিটরে ভেসে ওঠে। এতে একজনের ভোট অন্যজন দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই বলে মনে করছি।’

প্রসঙ্গত, প্রায় সোয়া পাঁচ লাখ ভোটারের নগরী নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা আর উৎসবের আমেজে ভোটগ্রহণ চলছে। সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোট চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

নাসিক নির্বাচনে এবার মেয়র পদে সাতজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া সংরক্ষিত ৯টি ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর পদে ৩৪ জন এবং ২৭টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ভোটে লড়ছেন ১৪৮ জন। মোট ভোটকেন্দ্র রয়েছে ১৯২টি। মোট ভোটার ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৬১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮৪৬ এবং নারী ভোটার ২ লাখ ৫৭ হাজার ৫১১। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার চারজন। সব কেন্দ্রে ভোট হচ্ছে ইভিএম পদ্ধতিতে।

নাসিক নির্বাচনে বর্তমান মেয়র ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী ও সম্প্রতি বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদ থেকে অব্যাহতি পাওয়া হাতি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের মধ্যে মূল ভোটযুদ্ধ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

টিটি/এমআরআর/এমএস

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]