সোমবার খুলে দেয়া হচ্ছে কাশ্মীরের সব স্কুল-কলেজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৩৪ পিএম, ১৬ আগস্ট ২০১৯

ভারত-অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেয়ার আগে থেকেই হঠাৎ করে বন্ধ করে দেয়া সেখানকার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। সেই সঙ্গে, বন্ধ করে দেয়া হয় টেলি ও ইন্টারনেট যোগাযোগ ব্যবস্থা। অবশেষে স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে ভারত-অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের দৈনন্দিন কার্যক্রম। আগামী সোমবার সেখানকার স্কুল-কলেজ খুলে দেয়া হচ্ছে।

সম্প্রতি মোদি সরকার এ নির্দেশ দিয়েছে।

এর আগে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা-সংক্রান্ত ৩৭৯ ধারা অবলুপ্ত করে শিথিল করা হয় সেখানকার নিরাপত্তা-বেষ্টনী। তুলে নেয়া হয় ১৪৪ ধারা।

গত ৫ আগস্ট সংসদে ৩০৭ ধারা বাতিল করে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা খারিজের ঘোষণা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সংখ্যাগরিষ্ঠতার বলে বিল পাস করিয়ে কাশ্মীর থেকে লাদাখকে বিচ্ছিন্ন করে দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গঠন করার ঘোষণা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

নিরাপত্তার স্বার্থে কাশ্মীরে কারফিউ জারি করা হয়। ঈদের নামাজ ও স্বাধীনতা দিবস পালনেও বজায় রাখা হয় নিরাপত্তাবাহিনীর কড়াকড়ি। বর্তমানে উপত্যকায় টেলি ও ইন্টারনেট যোগাযোগ না থাকায় গোটা দেশ তথা বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন স্থানীয়রা।

এসআর/এমকেএইচ

টাইমলাইন