এবার পাকিস্তানি কাশ্মীরকেও নিজেদের দাবি করলো ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৫৪ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০১৯

এবার পাক অধিকৃত কাশ্মীরকেও নিজেদের বলে দাবি করেছে ভারত। মঙ্গলবার লোকসভায় এক ভাষণে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, জম্মু-কাশ্মীর ভারতের একটি অখণ্ড অংশ। এর মধ্যে পাক অধিকৃত কাশ্মীরও রয়েছে।

মঙ্গলবার লোকসভায় জম্মু-কাশ্মীর সংরক্ষণ বিল উপস্থাপন করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ওই বিল উপস্থাপনের সময় তাকে তীব্র আক্রমণ করে বসেন কংগ্রেসের সদস্যরা।

সে সময় কংগ্রেস সদস্যদের কথার প্রতিবাদ করে অমিত শাহ বলেন, এটা কোন রাজনৈতিক পদক্ষেপ নয়। পুরো দেশের জন্য আইন তৈরির ক্ষমতা রাখে পার্লামেন্ট। ভারত এবং জম্মু-কাশ্মীর উভয় সংবিধানেই এই বিষয়ের অনুমোদন রয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, কাশ্মীর ভারতের একটি অখণ্ড অংশ। আমি এটা পরিষ্কার করতে চাই যে, আমরা সব সময়ই বলে থাকি জম্মু এবং কাশ্মীর যেখানে পাক অধিকৃত কাশ্মীরও রয়েছে। একই সঙ্গে ভারত চীন সীমান্তের আকসাই চীনও ভারতের অন্তর্ভুক্ত। এটা নিয়ে কোন সন্দেহের অবকাশ নেই। পুরো জম্মু-কাশ্মীরই ভারতের অখণ্ড অংশ।

অমিত শাহ আরও বলেন, কাশ্মীরের সীমার মধ্যে পাকিস্তানি কাশ্মীরও চলে আসে। এর জন্য আমরা জীবন দিয়ে দেব।
এদিকে, কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। ওই অঞ্চলে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানানো হয়েছে। অপরদিকে, কাশ্মীর ইস্যুটি গভীরভাবে নজরে রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রও।

সোমবার হঠাৎ করেই জম্মু-কাশ্মীরের ওপর থেকে ভারতের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়ার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে বিতর্ক শুরু হয়। কাশ্মীর ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে উল্লেখ করলেও ওই অঞ্চলে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর।

বিজেপি সরকারের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে বদলে গেছে জম্মু ও কাশ্মীরের মর্যাদা। ৬৯ বছর পর জম্মু-কাশ্মীরে বাতিল করা হলো ৩৭০ এবং ৩৫-এ ধারা। ফলে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা হারালো জম্মু ও কাশ্মীর।

একই সঙ্গে কাশ্মীর থেকে ভেঙে আলাদা করে দেওয়া হলো লাদাখকে। দু'টি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হচ্ছে জম্মু- কাশ্মীর ও লাদাখ। এই দুই জায়গাতেই থাকবেন লেফটেন্যান্ট গভর্নর।

টিটিএন/পিআর

টাইমলাইন