কাশ্মীর দুই টুকরো, মেনে নিতে পারছে না কংগ্রেস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪০ পিএম, ০৫ আগস্ট ২০১৯

ভারতের পার্লামেন্ট রাজ্যসভায় জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সংক্রান্ত সংবিধানের ধারা বাতিলের তীব্র বিরোধিতা করেছে দেশটির বিরোধী দল কংগ্রেস। তবে সংসদে কংগ্রেস দলীয় চিফ হুইপ ভূবনেশ্বর কালিটা দলটির এই অবস্থান মেনে নিতে পারেননি।

সংবিধানের কাশ্মীর সংক্রান্ত ৩৭০ ধারা বাতিলের বিরুদ্ধে দলীয় অবস্থান জানাতে সংসদে তাকে একটি বিবৃতি দেয়ার আহ্বান জানানো হয় দলের নীতি-নির্ধারণী পরিষদ থেকে।

কিন্তু তিনি দলের এই আহ্বানকে জাতির ভাবাবেগে আঘাত হানার শামিল উল্লেখ করে বিবৃতি দেয়া থেকে বিরত থেকেছেন। একই সঙ্গে রাজ্যসভায় কংগ্রেসের চিফ হুইপের পদ ও দল থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

এক বিবৃতিতে কংগ্রেসের চিফ হুইপ ভূবনেশ্বর কালিটা বলেন, কাশ্মীর ইস্যুর বিরোধীতা করে একটি হুইপ জারি করার আহ্বান জানায় কংগ্রেস। কিন্তু সত্য হচ্ছে, জাতির মানসিকতা পুরো পরিবর্তন হয়ে গেছে এবং এই অবস্থায় কংগ্রেসের এই অবস্থান দেশের জনগণের অনুভূতির বিরুদ্ধে যায়।... ৩৭০ ধারা বাতিলের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে কংগ্রেস তার আদর্শগত দিক থেকে আত্মহত্যা করেছে বলে আমার মনে হচ্ছে। আমি এটির অংশ হতে চাই না।

কাশ্মীরের মর্যাদা বাতিলের ঘটনায় কংগ্রেস বিরোধীতা করলেও দলটির এই হুইপ বিজেপি সরকারের পক্ষে অবস্থান নেন। আমি কংগ্রেসের ওই মতাদর্শ মেনে নিতে পারছি না। যে কারণে আমি কংগ্রেসের চিফ হুইপের পদ থেকে পদত্যাগ করছি। আজ কংগ্রেসের নেতৃত্ব দলটিকে ধ্বংসের চেষ্টা করছে। আমি বিশ্বাস করি, দলটির ধ্বংস কোনো কিছু দিয়েই ঠেকানো সম্ভব নয়।

জম্মু এবং কাশ্মীর ভেঙে দুটি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের প্রস্তাবনায় ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের ঘোর বিরোধী কংগ্রেস। দলটির নেতা গুলাম নবী আজাদ বলেন, আমি কখনো কল্পনাও করতে পারি না যে, রাজ্য প্রধানের পদ বিলুপ্ত হয়ে যাবে।

সূত্র : এনডিটিভি।

এসআইএস/জেআইএম

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]