‘কাশ্মীরের ভাঙন হিন্দু-মুসলিম বিভাজন উসকে দেবে’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:০১ পিএম, ০৭ আগস্ট ২০১৯

ভারতের সংবিধান থেকে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়ার ঘটনার বিরোধিতা করেছে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি। এই পদক্ষেপের প্রতি অসন্তোষ জানিয়েছে কমিউনিস্ট পার্টির ছাত্র সংগঠন এসএফআই (স্টুডেন্টস ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া)। ওই সংগঠনের তরফ থেকে আশঙ্কা প্রকাশ করে বলা হয়েছে যে, ভারতের এমন সিদ্ধান্তের কারণে হিন্দু-মুসলিম বিভাজন উসকে দিতে পারে।

কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেয়া ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের তীব্র বিরোধিতা করে ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, জম্মু-কাশ্মীরকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা দিয়েছিল ৩৭০ অনুচ্ছেদ। কিন্তু কাশ্মীরকে ভাগ করে জম্মু-কাশ্মীর ও আলাদা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। এটা সংবিধান বিরোধী ও সম্পূর্ণ অবৈধ।

এতে আরও বলা হয় ভারতের এই সিদ্ধান্ত গণতন্ত্র ও ভারতের আত্মার পরিপন্থী। এতে উত্তেজনা আরও বাড়বে। অবনতি হবে কাশ্মীর পরিস্থিতির। এর পাশাপাশি এই সিদ্ধান্ত হিন্দু-মুসলিম বিভাজনের রাজনীতিকে উসেকে দেবে। এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে গণতন্ত্রকামী, দেশপ্রেমী ও শান্তিপ্রিয় মানুষদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে সিপিএমের এই ছাত্র সংগঠন।

উল্লেখ্য, সামাজিক মাধ্যমে ক্যাম্পেইনের পাশাপাশি জম্মু কাশ্মীরের ছাত্র-ছাত্রীদের পাশে দাঁড়ানোর বার্তা দিয়েছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএফআই ইউনিট। তাদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, কাশ্মীরি ছাত্র-ছাত্রীরা যে কোনো সমস্যায় তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন। এই কর্মসূচিতে সম্মতি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও। কোনো কাশ্মীরি ছাত্র-ছাত্রী হোস্টেলে থাকতে চেয়ে আবেদন করলে তৎক্ষণাৎ তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

এর পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ নিয়ে বিজেপি-তৃণমূলের মধ্যে যোগসাজশ রয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বাম শিবির। গতকাল এই প্রস্তাবের বিরোধিতায় রাজ্যসভার অধিবেশনকক্ষ থেকে ওয়াকআউট করে তৃণমূল। সেই প্রসঙ্গ তুলে বিজেপি-তৃণমূলের ভেতরে ভেতরে যোগাযোগ রয়েছে বলে অভিযোগ করেছে সিপিএম।

টিটিএন/জেআইএম

টাইমলাইন