কাশ্মীর পরিস্থিতি নিজের চোখে দেখতে চান ভারতের প্রধান বিচারপতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৩১ এএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

প্রয়োজনে নিজে কাশ্মীর গিয়ে সেখানকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবেন বলে জানিয়েছেন ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। এ বিষয়ে জম্মু-কাশ্মীর হাইকোর্টের বিচারপতির সঙ্গে কথা বলবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

কাশ্মীরের পরিস্থিতি ‘অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ’ আখ্যা দিয়ে প্রধান বিচারপতি গগৈ বলেন, ‘পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে চাই। প্রয়োজনে আমি নিজে যাব কাশ্মীরে। এ বিষয়ে জম্মু-কাশ্মীর হাইকোর্টের বিচারপতির সঙ্গে কথা বলব।’

এর আগে ভারত-নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীরে দ্রুত স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনতে কেন্দ্রীয় সরকারকে নির্দেশ দেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। আদালত দেশটির সরকারের উদ্দেশে বলেছেন, ‘জম্মু ও কাশ্মীরে যত দ্রুত সম্ভব স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনার যথাসাধ্য চেষ্টা করুন। জাতীয় স্বার্থের কথা মাথায় রেখে সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপ নেয়া উচিত বলে মন্তব্য করেন আদালত।

সোমবার প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে তিন বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত সুপ্রিম কোর্টের একটি বেঞ্চ এসব কথা বলেন। বিচারকরা বলেন, ‘আমরা জম্মু ও কাশ্মীরে স্বাভাবিক জীবনব্যবস্থা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি। জাতীয় স্বার্থের কথা বিবেচনা করে নির্বাচনী ভিত্তিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের কথা বলেছি।’

গত ৫ আগস্ট মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ ভূস্বর্গ খ্যাত কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন-সংক্রান্ত সংবিধানের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে দেশটির ক্ষমতাসীন হিন্দুত্ববাদী সরকার। ১৯৮৯ সাল থেকে ভারত শাসনের বিরুদ্ধে কাশ্মীরিরা আন্দোলন করে আসছে।

আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সংঘর্ষে হাজার হাজার কাশ্মীরির প্রাণহানি ঘটেছে; যাদের অধিকাংশই বেসামরিক।

সরকার আদালতকে বলেছে, বিধিনিষেধ থাকাকালীন কাশ্মীরে কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে বিচারকদের বলা হয়েছে, কাশ্মীরভিত্তিক সব সংবাদপত্র চলছে এবং সরকার সেখানে সব ধরনের সহায়তা দিচ্ছে।

এসআর/পিআর

টাইমলাইন