চিঠিও পাঠানো যাবে না কাশ্মীরে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৬ এএম, ০৬ আগস্ট ২০১৯

আপাতত জম্মু ও কাশ্মীরে কোনও চিঠিও পাঠানো যাবে না। শুধু চিঠি নয়, নিষেধাজ্ঞা রয়েছে সব ধরনের পার্সেল নিয়েও। পূর্ব ভারতের পোস্টমাস্টার জেনারেল নীরজ কুমার জানিয়েছেন, এ বিষয়টি অভ্যন্তরীণ। তাই তিনি এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করবেন না।

সোমবার জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা-সংক্রান্ত সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করেছে ভারত। তারপর থেকেই জম্মু-কাশ্মীরে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জারি রয়েছে। ডাক বিভাগ জানিয়েছে, ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে কেন্দ্রের তরফ থেকে এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

ওই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, জম্মু ও কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করেই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে, জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের মর্যাদা হারিয়ে ফেলার আগেই এই নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে এবং সেখানে জম্মু ও কাশ্মীরকে রাজ্য বলেই উল্লেখ করা হয়েছে।

letter

বলা হয়েছে, এখন থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত জম্মু ও কাশ্মীরে কোনো কিছু পাঠানো যাবে না। এর মধ্যে চিঠি যেমন রয়েছে, তেমনই সব ধরনের পার্সেলও রয়েছে। বেসরকারি ক্যুরিয়ার সার্ভিসও আপাতত জম্মু ও কাশ্মীরে তাদের পরিষেবা বন্ধ রেখেছে বলে ডাক বিভাগ সূত্র জানিয়েছে।

এই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, জম্মু ও কাশ্মীরের পথেও হয়তো ইতোমধ্যেই অনেক চিঠি পাঠানো হয়ে থাকতে পারে। হয়তো দু’দিন আগেই কোনও চিঠি বা পার্সেল পাঠানো হয়েছে। সেগুলো সেভাবেই আটকা থাকবে। এ ধরনের সব চিঠি ও পার্সেল কাশ্মীরে না পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

টিটিএন/পিআর

টাইমলাইন