এ মুহূর্তে কিছু প্রকাশ করব না : আইইবির তদন্ত কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৪ পিএম, ০১ এপ্রিল ২০১৯

বনানীর এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের যথাযথ কারণ অনুসন্ধানে ভবনটি পরিদর্শন করেছে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (আইইবি) গঠিত তদন্ত কমিটি।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় ভবনটির ভেতরে প্রবেশ করেন আইইবির আট সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটির ছয়জন।

প্রায় পৌনে তিন ঘণ্টা পরিদর্শন শেষে আইইবির তদন্ত কমিটির সদস্য সচিব প্রকৌশলী কাজী খায়রুল বাশার সাংবাদিকদের বলেন, এ ভবনের অবস্থানটা দেখেছি, তিন ঘণ্টা অবজার্ভ করেছি। আগুনের কারণ, ক্ষয়ক্ষতি ও নকশা মোতাবেক নির্মাণ কাজ হয়েছিল কি না- তাই দেখেছি। আমরা তদন্ত কমিটি আবার বসব। আমাদের অবজারভেশন সেখানে তুলে ধরব। এ মুহূর্তে কিছু প্রকাশ করব না।

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী আব্দুস সবুর ও সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মঞ্জুর মোর্শেদ এ ব্যাপারে ব্রিফ করে আপনাদের জানাতে পারেন।

আগুনের সূত্রপাতের কোনো কারণ জানতে পারলেন কি না- জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখানে এসি বিস্ফোরণে, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট কিংবা অবহেলাজনিত কারণে আগুনের সূত্রপাত ঘটতে পারে। আমরা ফুটেজ নিয়েছি, ভবনের বিভিন্ন ফ্লোরের প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে কথা বলেছি, আগুনে ৮, ৯, ১০ ও ১১ তলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমরা স্যাম্পলও সংগ্রহ করেছি, আপাতত তদন্ত কমিটির অবজারভেশন জানাচ্ছি না।

‘আজ ছিল আমাদের প্রথম পরিদর্শন। প্রয়োজনে আবার পরিদর্শনে আসব। আগামী সাত দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেয়া হবে’,- বলেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ‘ বনানীর অগ্নিকাণ্ডের যথাযথ কারণ অনুসন্ধান ও সুপারিশমালা প্রণয়ণে’ আইইবির কমিটির সদস্য প্রকৌশলী হামিদুল হক, প্রকৌশলী ড. মো. আব্দুর রশিদ সরকার, প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান, প্রকৌশলী ইয়াসির আরাফাত, প্রকৌশলী ইয়াসির আরাফাত খান। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) কেমিক্যাল, ইলেকট্রিক্যাল, সিভিল ইঞ্জনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষকরাও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

জেইউ/জেডএ/আরআইপি

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :