পঞ্চগড়ে রাবারড্যাম ফুলে বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পঞ্চগড়
প্রকাশিত: ০৭:১৪ পিএম, ১৩ জুলাই ২০১৯

টানা ভারি বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা পানিতে পঞ্চগড়ের তালমা নদীর রাবার ড্যামের ছিদ্র দিয়ে পানি প্রবেশ করে উজানের বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। কৃত্রিম বাতাস ছাড়াই পানিতে রাবার ড্যামটি ফুলে নদীর উজানে অবস্থিত চা বাগানসহ ফসলের ক্ষেতে হুহু করে পানি ঢুকছে। এই অবস্থা চলতে থাকলে উজানের ১০টি গ্রামের দুই সহস্রাধিক মানুষ কৃত্রিম বন্যার শিকার হবে। এতে চা বাগানসহ প্রায় দুইশ একর জমির ফসল পানির নিচে তলিয়ে যাবে।

স্থানীয়রা জানান, শুষ্ক মৌসুমে সেচ সুবিধার জন্য ২০০৬-০৭ অর্থবছরে পঞ্চগড় সদর উপজেলার তালমা নদীর তালমা এলাকায় প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে রাবার ড্যামটি নির্মাণ করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর। ২০১৪ সালে ড্যামটিতে ত্রুটি দেখা দেয়। পরে ২০১৮ সালে প্রায় ৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ড্যামটি সংস্কার করা হয়। গত বছরের ডিসেম্বরে বোরো মৌসুমের শুরুতে যখন সেচ কার্যক্রম শুরু হবে, ঠিক সেই মুহূর্তে স্থানীয় কয়েকজন যুবক রাতের আঁধারে ড্যামটির রাবার এক ফুটের মত কেটে দেয়। এ বিষয়ে তালমা রাবার ড্যাম পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির নেতারা জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ করেন। পরে রাবারের আরও কয়েক স্থানে ছিদ্র হয়ে যায়। পরবর্তীতে এটি মেরামতের কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। এই রাবার ড্যামের রাবার কৃত্রিম বাতাস দিয়ে ফুলিয়ে নদীর উজানে পানি সংরক্ষণ করে শুষ্ক মৌসুমে সেচ কাজে ব্যবহার করা হয়।

Panchagarh-Flood-2

এদিকে গত কয়েক দিনের ভারি বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে রাবারটিতে পানি ঢুকে ফুলতে থাকে। শনিবার ড্যামের রাবার ১৪ ফুট পর্যন্ত ফুলে যায়। ফলে নদীর ভাটির দিকে তেমন পানি না থাকলেও উজানের বিভিন্ন এলাকায় পানি প্রবেশ করে। এই অবস্থা চলতে থাকলে ড্যামটির উজানে থাকা হাফিজাবাদ ইউনিয়নের বামনপাড়া, তালমা, ফকিরপাড়া, দলুয়াপাড়া, ভোলাপাড়া, গোফাপাড়া, হঠাৎপাড়া, আমকাঠাল ও পঞ্চগড় পৌরসভার চাঁনপাড়া, পূর্বজালাসী এলাকার প্রায় দুই সহস্রাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়বে। ঘরবাড়ি ও ফসলি জমি পানিতে তলিয়ে যাবে। বিষয়টি তাৎক্ষণিক সংশিষ্টদের জানালে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা রাবারড্যাম এলাকা পরিদর্শন করেন। কিন্তু পানি না কমা পর্যন্ত তারা কোনো কাজে হাত দিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন।

হাফিজাবাদ ইউনিয়নের বামনপাড়া এলাকার আল আমিন জুয়েল বলেন, আমার ৮ বিঘা জমির চা বাগানে পানি ঢুকেছে। আমার মতো অনেকর চা বাগানে পানি ঢুকেছে। পানি না কমানো গেলে আমাদের এলাকার চা বাগানসহ দুইশ একর জমির ফসল নষ্ট হয়ে যাবে।

Panchagarh-Flood

তালমা রাবারড্যাম পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বলেন, হঠাৎ রাবারটি আপনা আপনিই ফুলে উঠবে এটা আমরা ভাবতেও পারিনি। আমরা বিষয়টি এলজিইডির কর্মকর্তাদের অবহিত করেছি। তারা পরিদর্শন করে গেছেন। পানি না কমা পর্যন্ত কাজ করতে পারবেন না বলে তারা আমাদের জানিয়েছেন। আমরা তাদের দ্রুত কাজ করে দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছি।

পঞ্চগড় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহিদুর রহমান মণ্ডল বলেন, আমরা রাবারড্যাম এলাকা পরিদর্শন করেছি। তবে রাবারটি বিভিন্ন স্থানে ছিদ্র থাকায় পানি ঢুকে ফুলে গেছে। ওই পানি রাবার থেকে বের না হওয়া পর্যন্ত কিছুই করা যাচ্ছে না। বিষয়টি আমরাও ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।।

সফিকুল আলম/আরএআর/পিআর

টাইমলাইন