বরগুনায় ভেঙেছে সাড়ে ৮ হাজার বাড়ি-ঘর, দুইজনের মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরগুনা
প্রকাশিত: ০৭:০৬ পিএম, ০৪ মে ২০১৯

ব্যাপক ঘর-বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে বরগুনায় শেষ হয়েছে ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাব। সম্ভাব্য ক্ষতি ও প্রাণহানিরোধে ব্যাপক প্রচারণার পরও আশ্রয় কেন্দ্রে না গিয়ে বরগুনার পাথরঘাটায় গাছ চাঁপা পড়ে নিহত হয়েছেন দুইজন। এছাড়াও ফণীর প্রভাবে জেলায় অন্তত সাড়ে আট হাজার বাড়ি-ঘর আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আরও ক্ষতি হয়েছে ৪৫ হেক্টর জমির ফসল। বরগুনা জেলা প্রশাসন সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এদিকে ফণীর প্রভাবে শনিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ না থাকায় বন্ধ থাকে সব ধরনের মোবাইল ও ইন্টারনেট সংযোগ। বিকেল ৫টায় বিদ্যুৎ এলে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়ে ওঠে। বর্তমানে বরগুনার আকাশ মেঘাচ্ছন্ন রয়েছে। বরগুনা থেকে ছেড়ে যায়নি কোনো লঞ্চ। এছাড়াও বন্ধ রয়েছে জেলার অভ্যন্তরীণ রুটের সকল নৌ-যান।

বরগুনার জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ বলেন, ফণীর আঘাতে এ পর্যন্ত জেলার সাড়ে আট হাজার ঘর-বাড়ি আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে প্রাথমিক তথ্যে পাওয়া গেছে। তবে বেড়িবাঁধ ভাঙার কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে ৪৫ হেক্টর ফসলি জমির আংশিক ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে সহযোগিতা দেয়ার জন্য জেলার ৪২টি ইউনিয়নের প্রতিটিতে ১৭ হাজার করে টাকা এবং ৫ টন করে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়াও নিহত দুইজনের পরিবারকে ৪০ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

সাইফুল ইসলাম মিরাজ/এমএএস/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]