ফণী নিয়ে সংসদে বিশেষ সতর্কতা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৪০ পিএম, ০২ মে ২০১৯

বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসা ঘূর্ণিঝড় ফণী নিয়ে বিশেষ সতর্কতা জারি করেছে জাতীয় সংসদও। সংসদ ভবনের মতো বিশাল স্থাপনার কোনো রুম যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, কোথাও যেন আগুন না লাগে সে জন্য বৃহস্পতিবার বিকেলে সতর্ক থাকার জন্য বলা হয়েছে।

আগামীকাল শুক্রবার বিকেলে এ ঘূর্ণিঝড় বাংলাদেশে আঘাত হানতে পারে। কয়েকদিন আগেই অধিবেশন শেষ হওয়ায় শুক্রবারও সংসদ সচিবালয় দুপুর ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। এ ছাড়া শনিবার সারাদিনই বন্ধ। তাই ঘূর্ণিঝড়ের মধ্যে সংসদের কোনো রুমের কাচের জানালা যেন খোলা না থাকে সেই নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে প্রত্যেক রুমের বৈদ্যুতিক বাতি, এসির সুইচ যাতে বন্ধ থাকে সে নির্দেশনাও দেয়া হয়। সংসদ ভবনের প্রতিটি শাখা/অধিশাখায় রাখা সাউন্ড বক্সের মাধ্যমে এ ঘোষণা আসে।

জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় এবং অমাবস্যার প্রভাবে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪-৫ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় অতিক্রমকালে চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, ভোলা, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা জেলাগুলো এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোয় ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণসহ ঘণ্টায় ৯০ থেকে ১১০ কিলোমিটার বেগে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এইচএস/এনডিএস/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]