৬৩ ঘণ্টা পর পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় নৌ-চলাচল স্বাভাবিক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মানিকগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:২৭ এএম, ০৫ মে ২০১৯
ফাইল ছবি

ঘূর্ণিঝড় ফণীর কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে টানা ৬৩ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর লঞ্চ এবং ৩৩ ঘণ্টা পর ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। এর আগে ফণীর প্রভাবে সম্ভাব্য দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরি ও লঞ্চ সার্ভিস বন্ধ রাখে কর্তৃপক্ষ।

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার হিসেবে খ্যাত এই নৌপথে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল হঠাৎ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দুই প্রান্তে আটকা পড়ে শত শত যানবাহন। এতে চরম দুর্ভোগের শিকার হন যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা। অনেকে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে ঘাটে পারের অপেক্ষায় বসে থাকলেও বেশিরভাগই ফিরে যেতে বাধ্য হন। রোববার সকাল থেকে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল স্বাভাবিক হওয়ায় স্বস্তি ফিরেছে পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীদের মাঝে।

বিআইডব্লিউটিএর সহকারী পরিচালক (নৌ-ট্রাফিক) ফরিদুল ইমলাম জানান, ঘূর্ণিঝড় ফণীর কারণে দেশের প্রতিটি নৌ-বন্দরে সতর্কতা জারি করে আবহাওয়া অধিদফতর। এ কারণে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২ মে বৃহস্পতিবার দুপুর তিনটা থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ও আরিচা-কাজীরহাট নৌ-রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রাখা হয়। ঘূর্ণিঝড় ফণী চলে যাওয়ার পর রোববার সকাল ৬টা থেকে পুনরায় ওই দুই নৌ-পথে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির পাটুরিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক মো. সালাউদ্দিন জানান, ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে ঝোড়ো বাতাস ও নদীতে ঢেউ সৃষ্টি হওয়ায় ফেরি চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। ফলে ৩ মে শুক্রবার দুপুর ২টা থেকে পারাপার বন্ধ রাখা হয়। তবে ঝড়ের প্রভাব কিছুটা কমে গেলে দুই দফা ছোট ফেরি দিয়ে পারাপার করা হয়।

ফণী চলে যাওয়ার পর আবহাওয়া ভালো হওয়ায় শনিবার মধ্যরাত থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে সবধরনের ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়। ঘাটের সার্বিক পরিস্থিতিও স্বাভাবিক রয়েছে বলে তিনি জানান।

বি.এম খোরশেদ/এফএ/এমএস

টাইমলাইন